আপডেট অক্টোবর ২৪, ২০১৯

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ , গ্রীষ্মকাল, ৩ শাওয়াল, ১৪৪১

পথচারীর জন্য সড়ক পারাপারকে নির্বিঘ্ন করতে রাজধানীতে এবার ‘পুশ বাটন’

রকিবুল ইসলাম সোহাগ

নিরাপদ নিউজ

নিরাপদ নিউজ: পথচারীর জন্য সড়ক পারাপারকে নির্বিঘ্ন করতে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে উদ্বোধন করা হল পুশ বাটন টাইম কাউন্টডাউন সিগনালসহ জেব্রাক্রসিং। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় মোহাম্মদপুরের গ্রিন হেরাল্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের সামনে পুশ বাটন টাইম কাউন্টডাউন সিগনালসহ জেব্রাক্রসিং উদ্বোধন করেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

এ উপলক্ষে গ্রিন হেরাল্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুল কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের নিয়ে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানের শুরুতে সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত ও স্কুল সংগীত পরিবেশিত হয়। এসময় জাতীয় পতাকা ও স্কুলের পতাকা উত্তোলন করেন যথাক্রমে মেয়র আতিকুল ইসলাম ও স্কুলের অধ্যক্ষ আশা গোমেজ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে মেয়র বলেন, ‘তোমরাই বাংলাদেশ। তোমরাই আমাদের ভবিষ্যৎ। তোমরাই আমাদের রাষ্ট্রনায়ক। কেননা তোমরা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম তোমাদের কাছে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে’। এসময় তিনি নিরাপদে সড়ক আইন মেনে চলা, শিক্ষকদের কথা, বাবা মায়ের কথা মেনে চলার উপদেশ দেন।’

এ সময় ট্রাফিক আইন মেনে চলার কথা উল্লেখ করে চালকদের উদ্দেশে আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘এখানকার নতুন সিগন্যাল লাইটের সঙ্গে ক্যামেরার ব্যবস্থা আছে। যেসব গাড়ির ড্রাইভার ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করবে তাদের গাড়ির নম্বর ক্যামেরা দিয়ে খুঁজে বের করা হবে। তাদেরকে চিহ্নিত করে মামলা দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই পুলিশকে সে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মেলাতে হলে আমাদেরকে সুনাগরিক হতে হবে। ঢাকা শহরকে স্মার্ট সিটিতে রূপান্তর করতে হবে।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, গ্রিন হেরাল্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি সিস্টার রেবা ভেরোনিকা ডি’কস্টা, স্কুলের অধ্যক্ষ সিস্টার ভার্জিনিয়া আশা গোমেজ, ডিসি (ট্রাফিক পশ্চিম জোন) জসীম উদ্দীন মোল্লাসহ স্কুলের শিক্ষক শিক্ষার্থী ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, এ জেব্রা ক্রসিং দিয়ে যেন শারীরিক প্রতিবন্ধীসহ সকল বয়সের মানুষ সহজে পারাপার হতে পারে সেজন্য ফুটপাত রাস্তার সঙ্গে সমান করে মিলানো হয়েছে। তাছাড়া এই স্থানে গাড়ির গতি কমানোর জন্য রেইজড জেব্রাক্রসিং তৈরি করা হয়েছে। পথচারীদের পারাপারের জন্য প্রাথমিকভাবে সবুজ সংকেত হিসেবে ২৫ সেকেন্ড সময় প্রদান করা হয়েছে। একই সঙ্গে গাড়ির গতি স্বাভাবিক রাখার জন্য একটি পথচারী সবুজ সংকেত অতিবাহিত হওয়ার পর গাড়ি চলাচলের জন্য ১২৭ সেকেন্ড প্রদান করা হয়েছে। উক্ত সময়ে পথচারীগণ বাটনে চাপ প্রদান করলেও পথচারী পারাপারের জন্য সবুজ সংকেত প্রদান করা হবে না, কেবলমাত্র ১২৭ সেকেন্ড পরই পথচারী পারাপারের জন্য সবুজ সংকেত চালু হবে। পথচারী পারাপারের জন্য সবুজ সংকেত চালু হলে গাড়িকে থামানোর জন্য গাড়ির দিকে প্রদর্শনকারী লাল সংকেত দেখাবে। সংকেতসমূহে গাড়ি ও পথচারী চলাচল নিয়ন্ত্রণ করার জন্য গ্রিন হেরাল্ড স্কুলের দুইজন লোক নিযুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া এই পুশ বাটন গ্রিন হেরাল্ড স্কুল কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত হবে।

মন্তব্য করুন

Please Login to comment
avatar
  Subscribe  
Notify of