ব্রেকিং নিউজ

আপডেট ১৭ মিনিট ৭ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ৬ জুলাই, ২০২০, ২২ আষাঢ়, ১৪২৭ , বর্ষাকাল, ১৪ জিলক্বদ, ১৪৪১

সাকিব আল হাসান নিষিদ্ধে ষড়যন্ত্র খুঁজবেন না: হর্শ ভোগলে

রকিবুল ইসলাম সোহাগ

নিরাপদ নিউজ

নিরাপদনিউজ: গতকাল সন্ধ্যা থেকেই ক্রিকেটবিশ্বে তোলপাড় চলছে। কারণ আলোচনার কেন্দ্রে থাকা ক্রিকেটারটির নাম সাকিব আল হাসান। অন্য কেউ হলে হয়তো এতটা আলোড়ন হতো না। সাবেক ও বর্তমান ক্রিকেটাররা সাকিবের শাস্তি নিয়ে নানা রকম প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন। তাদের দলে যোগ দিলেন সবসময় বাংলাদেশের ক্রিকেটকে সমর্থন দিয়ে যাওয়া খ্যাতিমান ভারতীয় ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে। সাকিবের এই ঘটনায় তিনি ভীষণ মর্মাহত। একইসঙ্গে তিনি এই ঘটনার পেছনে কোনো ষড়যন্ত্র না খোঁজার অনুরোধ করেছেন।

হর্ষ বলেছেন, ‘সাকিব আল হাসানকে নিয়ে বাংলাদেশে যা ঘটেছে তাতে আমি হতভম্ব এবং হতাশ। সাকিব ক্রিকেটের বড় তারকা এবং এ মুহূর্তে সবচেয়ে ভালো খেলোয়াড়দের একজন। অনেক অভিজ্ঞ। সে একজন খেলোয়াড় যাকে গোটা দেশ সমর্থন দেয়, তার দিকে তাকিয়ে থাকে। আর তাই সাকিব অনৈতিক প্রস্তাব পাওয়ার কথা জানায়নি, এ ব্যাপারটি ভীষণ ভীষণ বিভ্রান্তিকর। এটা একবার নয় তিন-তিনবার ঘটেছে। আমি বিস্মিত,কারণ সাকিব এ ধরনের আচরণ জানানোর ব্যাপারে সব সময়ই সোচ্চার। ২০১৩ সালে বিপিএলে তা করেছে, যেবার মোহাম্মদ আশরাফুল নিষিদ্ধ হলো। সে বাংলাদেশের একজন গর্বিত ক্রিকেটার। তার মতো কেউ অজ্ঞতার ছায়ার আড়ালে লুকিয়ে থাকতে পারে না।’

উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, ‘আমরা কিন্তু লোক দেখে বুঝতে পারি কার সঙ্গে কথা বলা যাবে, কার সঙ্গে যাবে না। লোকে আপনার সঙ্গে মিশতে চায়। কিন্তু ভেতরের সহজাত চিন্তা বলে দেয়, কার সঙ্গে কথা বলা যাবে না। আর ঠিক এটা ভেবেই আমি বিস্মিত হয়েছি। যে সারা বিশ্বে বিভিন্ন লিগে খেলে, অনেক ধরনের মানুষের সঙ্গে মেশে। তার চিন্তা তো আরও তীক্ষ্ণ হওয়ার কথা। প্রতি সফরেই আইসিসি দুর্নীতি বিরোধী ইউনিটের নিয়ম-নীতি বলে দেয়। সন্দেহজনক কিছু মনে হলে অবশ্যই জানাতে বলা হয়। এমনকি অনূর্ধ্ব-১৯ থেকে টি-টেন কিংবা টি-টোয়েন্টি লিগ- বিশ্বের সব লিগেই সন্দেহজনক কিছু মনে হলে জানাতে বলা হয়। তাহলে সাকিব কেন জানাল না? সে এত অভিজ্ঞ খেলোয়াড়, সে কি ভেবেছিল সে পার পেয়ে যাবে?’

সাকিবকে ‘ভাগ্যবান’ উল্লেখ করে হর্ষ অনুরোধ করেন কোনো ষড়যন্ত্র না খুঁজতে, ‘আমি মনে করি সাকিব খুব ভাগ্যবান যে শুধু নিষেধাজ্ঞা পেয়েছে। এক বছর পরই সে ফিরতে পারবে। সে সত্যিই ভাগ্যবান। আমি মনে করি না এ ঘটনায় ষড়যন্ত্র তত্ত্ব খোঁজা উচিত। কেন আমাদের খেলোয়াড়, অন্য দেশের কেন না? স্মিথ-ওয়ার্নারকে তো আইসিসি নিষিদ্ধ করেনি; ওদের বোর্ডই করেছিল। তারা আবার দুর্দান্ত রূপে ফিরে এসেছে। বল টেম্পারিংয়ের চেয়ে জুয়াড়ির প্রস্তাব না জানানো অনেক অনেক বড় অপরাধ। আমি আশা করি, সাকিবও স্মিথ-ওয়ার্নারদের মতো ভয়ংকর রূপে ফিরে আসবে। সাকিব বিশ্বকাপে কী করেছে তা সবাই দেখেছে। দলের শুধু সেরা ব্যাটসম্যান না সেরা বোলারও বটে। এমন খেলোয়াড় খুব বিরল।’

0 0 vote
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments