ব্রেকিং নিউজ

আপডেট ১১ মিনিট ২০ সেকেন্ড

ঢাকা রবিবার, ৩১ মে, ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ , গ্রীষ্মকাল, ৭ শাওয়াল, ১৪৪১

মোবাইল ফোনে কল দিয়ে ২ভাইকে ডেকে ১ ভাইকে কুপিয়ে হত্যা, অপর জন আহত

রকিবুল ইসলাম সোহাগ

নিরাপদ নিউজ

গোলাম রব্বানী শিপন,নিরাপদ নিউজ: বগুড়ার সদর উপজেলার মহাস্থানের অদূরে দিঘলকান্দী মোড়ে ছাগল বিক্রির কথা বলে মোবাইলে ২ভাইকে ডেকে ১ ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এবং অপর বড় ভাইয়ের কব্জি কর্তন করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক সাড়ে ৮টায় সদর উপজেলার লাহিড়ীপাড়া ইউনিয়নের দিঘলকান্দী মোড়ে একটি লিচু বাগানের পাশ থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত যুবক পেশায় কসাই (মাংস বিক্রেতা)। সে বগুড়ার গোকুল ইউনিয়নের পলাশবাড়ী গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নান কসাই এর ২য় পুত্র আপেল মাহমুদ (৩২)। তার বড় ভাই আল মামুন (৪০)। তার হাতের কব্জিও কর্তন করা হয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সকালে নিহত কসাই আপেল মাহমুদ ও বড়ভাই অাল মামুনকে ছাগল বিক্রির কথা বলে মোবাইল ফোন করে ডেকে নেয় দূর্বৃত্তরা। এরপর তারা সেখানে পৌঁছিলে ৭/৮ জনের একটি দূর্বৃত্তের দল তাদের উপর হামলা চালায়। এসময় তারা আপেলকে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ লিচু বাগানের নিচে ফেলে একই ভাবে আল মামুনের উপর হামলা চালিয়ে তার হাতের কব্জি ইটের ওপর রেখে কর্তন করে। এসময় তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এলে দূর্বৃত্তরা ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালিয়ে যায়। এরপর এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে সুরুতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে মর্গে পাঠায়। নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন, সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী। পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। তবে কি কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে তা জানতে পারেনি পুলিশ। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত তদন্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম রেজা জানান, হত্যার কারণ জানা যায়নি। তবে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি মামলা করার প্রস্তুতি চলছে। এদিকে একাধিক সূত্রে জানা যায়, গোকুল ইউনিয়নের পলাশবাড়ী গ্রামের বিএনপির স্বেচ্ছা সেবক দলনেতা সনি হত্যার আসামী ছিল, নিহতের বড় ভাই আল মামুন। ইতিপূর্বে ওই এলাকায় দুই গ্রুপের দফায় দফায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ লেগেই থাকত।

মন্তব্য করুন

Please Login to comment
avatar
  Subscribe  
Notify of