আপডেট মার্চ ১২, ২০২০

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই, ২০২০, ২৫ আষাঢ়, ১৪২৭ , বর্ষাকাল, ১৭ জিলক্বদ, ১৪৪১

নীলফামারীতে নিষিদ্ধ ঘোষিত আল্লাহর দলের দুই শীর্ষ জঙ্গী গ্রেপ্তার

রকিবুল ইসলাম সোহাগ

নিরাপদ নিউজ

নিরাপদ নিউজ : নীলফামারীতে নিষিদ্ধ ঘোষিত আল্লাহর দলের দুই শীর্ষ জঙ্গী নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত বুধবার রাতে পৃথক স্থান থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে। বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান তাঁর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

পুলিশ সুপার জানান, জলঢাকা পৌর এলাকার বগুলাগাড়ি বারঘড়িয়া গ্রামের মো. মিলনের (২৫) বাড়িতে নিষিদ্ধ সংগঠনটির গোপন বৈঠকের খবরে অভিযান চালানো হয়। সেখানে অবস্থানরত দলের তত্বাবধায়ক সাইফুল আলমকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া রোজারভিটা গ্রামের মৃত আনছার আলীর ছেলে। দলটির সহ-অধিনায়ক আব্দুল আজিজ তার মামা। তিনি বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। ১৯৯৮ সালে মামার হাত ধরে নিষিদ্ধ সংগঠনটির সঙ্গে জড়িত হন সাইফুল। ২০০৭ সালে দলে বৃহত্তর রাজশাহী বিভাগের প্রধানের দায়িত্ব পান। বর্তমানে দলের ছয় জন তত্বাবধায়কের মধ্যে একজন।

পরে তার দেওয়া তথ্যে জেলা সদরের ইটাখোলা ইউনিয়নের ছাড়ারপাড় গ্রামের বাড়ি থেকে দলটির নীলফামারী জেলার প্রচার সম্পাদক জিকরুল আহম্মদকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে ওই গ্রামের ইমান আলীর ছেলে। এ সময় সংগঠনের কাজে ব্যবহৃত চারটি মোবাইল ফোন সেট ও সাতটি সিমকার্ড উদ্ধার করা হয়।

তিনি জানান, তারা মূলত ২০০৭ সালে প্রেপ্তার হওয়া জঙ্গী মতিন মেহেদীর আল্লাহর দলের অনুসারী। সরকার এবং গণতন্ত্রের বিরোধী তারা। দলের নেতা মতিন মেহেদীকে আল্লাহর বিশেষ দূত মনে করেন।

জলঢাকা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, তাদের বিরুদ্ধে জলঢাকা থানার উপ-পরিদর্শক নিশার আলী তিতুমীর বাদি হয়ে ২০০৯ সালের সন্ত্রাস বিরোধী আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। বিকালে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৩ এর বিচারক মো. মাসুদ রানার আদালতে তাদেরকে হাজির করা হবে।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান বলেন, তারা বড় ধরণের নাশকতার পরিকল্পনায় ওই স্থানে গোপন বৈঠকে বসেন। সেখান থেকে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করে। উত্তরাঞ্চলসহ গোটা দেশে তাদের জঙ্গী নেটওয়ার্ক আছে।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x