ব্রেকিং নিউজ

আপডেট ২ মিনিট ৩৬ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১৪ ফাল্গুন, ১৪২৭, বসন্তকাল, ১৪ রজব, ১৪৪২

বিজ্ঞাপন

লাখাইয়ে প্রধানমন্ত্রীর ২৫শ’ টাকার আর্থিক সহায়তা তালিকা তৈরিতে ব্যাপক অনিয়ম

মহসিন সাদেক, লাখাই ( হবিগঞ্জ)

নিরাপদ নিউজ

হবিগঞ্জের লাখাইয়ে করোনা ভাইরাসে কর্মহীন মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার হিসেবে দেয়া ২ হাজার ৫শ’ টাকা নগদ অর্থ প্রাপ্তদের তালিকা তৈরীতে ব্যাপক অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। সূত্রে জানা যায় ৩০৬ জন সুবিধাভোগীর নামে ৪ টি মোবাইল নাম্বার ব্যাবহার করা হয়েছে ও চারটি মোবাইল নাম্বারই চেয়ারম্যানের আত্মীয় স্বজনদের। জানা যায়, করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া দেশের ৫০ হাজার পরিবারকে নগদ ২ হাজার ৫শ’ টাকা করে দেয়ার উদ্যোগ নেয় সরকার।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ উদ্যোগের মাধ্যমে হবিগঞ্জ জেলার ৭৫ হাজার পরিবার নগদ অর্থ সহায়তা পাওয়ার কথা রয়েছে। এর জন্য স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের মাধ্যমে প্রতিটি ওয়ার্ড থেকে তালিকা চূড়ান্ত করা হয়। কিন্তু সেই তালিকা তৈরীতে হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নে ব্যপক অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। তালিকা দিনমজুর ও শ্রমজীবীদের নাম থাকার কথা থাকলেও রয়েছে বিত্তশালি ও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের স্বজনদের নাম। অনুসন্ধানে দেখা যায়-ওয়ার্ড ভিত্তিক ত্রাণ কমিটি গঠন করার কথা থাকলেও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যরা তা না করে নিজেদের মনগড়াভাবে স্বজন ও নিজস্ব বলয়ের লোকদের মাধ্যমে তালিকা তৈরি করেছেন।

টাকা মূলত মোবাইল ব্যাকিং সার্ভিস নগদ, বিকাশ, রকেট ও শিওরক্যাশের মাধ্যমে সরাসরি উপকারভোগী পরিবারের কাছে প্রেরণ করার কথা রয়েছে।সেই হিসেবে উপকারভোগী পরিবারের মোবাইল নাম্বার প্রেরণ করার কথা থাকলেও অনেকেই নিজের ও স্বজনদের মোবাইল নাম্বার প্রেরণ করেছেন। লাখাই উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের অনেক ওয়ার্ডেই একই মোবাইল নাম্বার রয়েছে একাধিক উপকারভোগীর নামের পাশে। তালিকা পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, মুড়িয়াউক ইউনিয়নে ৪টি মোবাইল নাম্বার ব্যবহার হয়েছে ৩০৬ জনের নামের পাশে। এর মধ্যে ৯৯ জন উপকারভোগীর নামের বিপরীতে রয়েছে ০১৯৪৪-৬০৫১৯৩ মোবাইল নাম্বারটি।

এছাড়া ০১৭৪৪-১৪৯২৩৪ মোবাইল নাম্বার রয়েছে ৯৭ জনের নামে, ০১৭৮৬-৩৭৪৩৯১ এ মোবাইল নাম্বার ৬৫ জনের ও ০১৭৬৬-৩৮০২৮৪ মোবাইল নাম্বার রয়েছে ৪৫ জন সুবিধাভোগীর নামের পাশে। এছাড়াও লাখাই উপজেলার বুল্লা ইউনিয়নের মুখলেছ মেম্বারের মোবাইল নাম্বারে ব্যাবহার করা হয়েছে ১৮ জন সুবিধাভোগীদের নামের বিপরীতে। লাখাই উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নের অনেক ওয়ার্ডের অনিয়মের চিত্র একই রকম।এনিয়ে গত দুই দিন যাবত তুলকালাম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে। মুড়িয়াউক ইউনিয়নের বেশ কয়েকজন হতদরিদ্রদের সাথে আলাপ কালে তারা বলেন সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধিরা তাদের মনগড়া ভাবেই তাদের স্বজন ও সমর্থকদের নাম দিচ্ছেন ফলে প্রকৃত হতদরিদ্ররা বঞ্চিত হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঈদ উপহার থেকে।

সরেজমিনে গিয়ে মুড়িয়াউক ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ ছবুর মিয়া তিনি বলেন সংশ্লিষ্ট কমিটির মাধ্যমে তালিকা হওয়ার কথা থাকলে ও তিনি এবিষয়ে কিছুই জানেনা। জলফু মিয়া নামে একজন জানান তার মোবাইল নাম্বার টি বেশ কজন সুবিধাভোগীর নামের সাথে যুক্ত করা হয়েছে কিন্তু তিনি এর কিছুই জানে না। মুড়িয়াউক ইউনিয়নের তালিকা যাচাই বাছাই এর জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত তেঘরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহমান বলেন তালিকা যাচাই বাছাই কালে অনেক জন সুবিধাভোগীর নামে একটি মোবাইল নাম্বার পাওয়া গেছে ও তালিকায় অনেক ক্রটি বিচ্যুতি রয়েছে এবং তা সংশোধনের জন্য কাজ চলছে।

বুল্লা ইউনিয়নের দায়িত্ব প্রাপ্ত ট্যাগ অফিসার আফজালুর রহমান বলেন একই মোবাইল নাম্বার একাধিক উপকারভোগীর নামের সাথে দেওয়া হয়েছে এবং একই পরিবারের একাধিক ব্যাক্তির নাম আছে বলে সত্যতা নিশ্চিত করে তিনি বলেন যাচাইকালে এরকম তথ্য পাওয়া গেছে তবে নাম পরিবর্তনের সুযোগ নাই। এ ব্যাপারে মুড়িয়াউক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মলাই বলেন- অল্প সময়ের মধ্যে তালিকা তৈরির কারণে কিছু ভুল হয়েছে।এগুলো সংশোধনের কাজ চলছে।

৪ টি মোবাইল নাম্বার ৩০৬ বার ব্যাবহার করার বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন একটি মোবাইল নাম্বার আমার ভাতিজার আর অন্য তিনটি নাম্বার অন্য জনপ্রতিনিধির। একই পরিবারে ৬ টি নাম ও স্বামী স্ত্রী এ তালিকায় কিভাবে আসল বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান এবিষয়ে আমি জানি না মেম্বার ও মহিলা মেম্বার ভালভাবে বলতে পারবে। লাখাই উপজেলা নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তা লুসিকান্ত হাজং বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত পরিবার প্রতি নগদ ২৫০০ অর্থ প্রাপ্তদের তালিকায় কিছু ক্রটি বিচ্যুতির অভিযোগ পাওয়ায় সংশ্লিষ্ট ব্যাক্তিবর্গদের নিয়ে শতভাগ স্বচ্ছতার ভিত্তিতে শিক্ষকদের মাধ্যমে তালিকা সংশোধন করে নতুন তালিকা প্রকাশ করা হবে।

৪ টি মোবাইল নাম্বার ৩০৬ জন উপকারভোগীর নামে ব্যাবহার করার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন অভিযোগ প্রমাণিত হলে উর্ধতন কর্তৃপক্ষ সংশ্লিষ্ট তালিকা প্রনয়নকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x