ব্রেকিং নিউজ

আপডেট ১৬ মিনিট ১ সেকেন্ড

ঢাকা শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০, ১৯ আষাঢ়, ১৪২৭ , বর্ষাকাল, ১০ জিলক্বদ, ১৪৪১

কুড়িগ্রামে আড়াই শতাধিক গ্রাম প্লাবিত, পানিবন্দি হয়ে পড়েছে অন্তত ৭৫ হাজার মানুষ!

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

নিরাপদ নিউজ

টানা বর্ষণ ও উজানের ঢলে কুড়িগ্রামে বন্যা দেখা দিয়েছে। ধরলা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় এ দুটি নদীর অববাহিকার আড়াই শতাধিক চর ও নদীসংলগ্ন বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে অন্তত ৭৫ হাজার মানুষ। শনিবার বিকালে ধরলার পানি বিপৎসীমার ৪৩ ও ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপৎসীমার ৩৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

বন্যাকবলিত এলাকায় প্রতিনিয়ত নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। এসব এলাকার পাট, সবজি ও বীজতলা নিমজ্জিত হয়েছে। গ্রামীণ সড়কগুলো ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে অনেক এলাকায়। কুড়িগ্রাম-যাত্রাপুর সড়কটিতে পানি ওঠায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। চরাঞ্চলের অনেকেই উঁচু ভিটায় থাকলেও নিচু ভিটার বাসিন্দারা নৌকা ও চকির ওপর আশ্রয় নিয়েছে। কেউ কেউ নিকটবর্তী বাঁধ, রাস্তা, আশ্রয়কেন্দ্র ও স্কুলে আশ্রয় নিয়েছে। তবে প্রবল বর্ষণের কারণে খোলা আকাশের নিচে অবস্থান নেওয়া পরিবারগুলোর দুর্ভোগ চরমে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম জানিয়েছেন, ভারত ও বাংলাদেশ অংশে ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় আরো ৩-৫ দিন নদ-নদীর পানি বাড়বে। তিনি আরো জানান, ঝুঁকিপূর্ণ বাঁধ রক্ষার জন্য জরুরি ভিত্তিতে বালুর বস্তা ফেলাসহ দিন-রাত তদারকি ও মনিটরিং কাজ করা হচ্ছে।

কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, ভাঙনকবলিতদের সরিয়ে আনতে কাজ করছে উপজেলা প্রশাসন। এ ছাড়াও শুক্রবার বন্যা ও ভাঙনকবলিত উপজেলাগুলোতে ৩০২ মেট্রিকটন চাল ও ৩৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please Login to comment
avatar
  Subscribe  
Notify of