ব্রেকিং নিউজ

আপডেট জুন ৩০, ২০২০

ঢাকা শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০, ১৯ আষাঢ়, ১৪২৭ , বর্ষাকাল, ১০ জিলক্বদ, ১৪৪১

করোনা: বিশ্বে মোট আক্রান্ত ১কোটি ৪লাখ ৯হাজার ২৩৯জন, মৃত্যু ৫লাখ ৮হাজার ৮৪জন

এস এম আজাদ হোসেন

নিরাপদ নিউজ

আজ মঙ্গলবার (৩০ জুন) বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টা পর্যন্ত বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ০৪ লাখ ০৯ হাজার ২৩৯ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ১ লাখ ৬৫ হাজার ৩৮১ জন। নতুন করে প্রাণ গেছে ৩ হাজার ৬৭৪ জনের। এ নিয়ে করোনারায় মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ৫ লাখ ০৮ হাজার ৮৪ জন মানুষ।
আর ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫৬ লাখ ৬৪ হাজার ৪৯৩ জন।গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ্য হয়েছেন ০১ লাখ ১০ হাজার ৯৯৮ জন।বিশ্বে বর্তমানে মধ্যমমানের আক্রান্ত ৪১ লাখ ৭৯ হাজার ১৩২ জন এবং গুরুতর অসুস্থ্য ৫৭ হাজার ৫৩০ জন।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্বে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ২৬ লাখ ৮১ হাজার ৮১১ জন।সবচেয়ে বেশি মৃত্যুও হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে ১ লাখ ২৮ হাজার ৭৮৩ জন। আক্রান্তের মতো সুস্থ হওয়ার দিক থেকেও সবার শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এ পর্যন্ত অন্তত ১১ লাখ ১৭ হাজার ১৭৭ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন।

আক্রান্তের ও মৃতের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের পরেই উঠে এসেছে ব্রাজিল। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৩ লাখ ৭০ হাজার ৪৮৮ জন আর আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৮ হাজার ৩৮৫ জন। এখন পর্যন্ত ব্রাজিলে ৭ লাখ ৫৭ হাজার ৪৬২ জন সুস্থ হয়েছেন।

আক্রান্তে তৃতীয় অবস্থানে রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৪১ হাজার ১৫৬ জন। আর মারা গেছেন ০৯ হাজার ১৬৬ জন।অপরদিকে সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ০৩ হাজার ৪৩০ জন।

প্রতিবেশী দেশ ভারত আক্রান্তের সংখ্যায় উঠে এসেছে ৪ নম্বরে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লাখ ৬৭ হাজার ৫৩৬ জন, আর এখন পর্যন্ত মৃত্যু ১৬ হাজার ৯০৪ জনের।ভারতে সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৩৫ হাজার ২৭১ জন।

এর পরের অবস্থানে যুক্তরাজ্য, এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ১১ হাজার ৯৬৫ জন। মৃতের সংখ্যায় তৃতীয় দেশটিতে মারা গেছেন ৪৩ হাজার ৫৭৫ জন।

যুক্তরাজ্যের পর স্পেনে আক্রান্ত ২ লাখ ৯৬ হাজার ৫০ জন, মৃত্যু ২৮ হাজার ৩৪৬ জন আর সেরে উঠেছে ১ লাখ ৯৬ হাজার ৯৫৮ জন।

পেরুতে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৮২ হাজার ৩৬৫ জন, মোট মৃত্যু ৯ হাজার ৫০৪ জন আর সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৭১ হাজার ১৫৯ জন।
চিলিতে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৭৫ হাজার ৯৯৯ জন।মোট মৃত্যু ৫ হাজার ৫৭৫ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ২ লাখ ৩৬ হাজার ১৫৪ জন।

ইতালিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৪০ হাজার ৪৩৬ জন।দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৩৪ হাজার ৭৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।আর ইতিমধ্যে ইতালিতে সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৮৯ হাজার ১৯৬ জন।
ইরানে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ২৫ হাজার ২০৫ জন।মোট মৃত্যু ১০ হাজার ৬৭০ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৮৬ হাজার ১৮০ জন।

মেক্সিকোতে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ২০ হাজার ৬৫৭ জন।মোট মৃত্যু ২৭ হাজার ১২১ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৩১ হাজার ২৬৪ জন।
পাকিস্তানে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ০৬ হাজার ৫১২ জন।মোট মৃত্যু ৪ হাজার ১৬৭ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ৯৫ হাজার ৪০৭ জন।
তুরস্কে মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬১৩ জন।মোট মৃত্যু ৫ হাজার ১১৫ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৭১ হাজার ৮০৯ জন।

জার্মানিতে মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৯৫ হাজার ৩৯২ জন।মোট মৃত্যু ৯ হাজার ৪১ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৭৮ হাজার ১০০ জন।

সৌদিআরবে মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৮৬ হাজার ৪৩৬ জন।মোট মৃত্যু ১ হাজার ৫৯৯ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ২৭ হাজার ১১৮ জন।

ফ্রান্সে মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৬৪ হাজার ২৬০ জন।মৃত্যুতে পঞ্চম অবস্থানে থাকা ফ্রান্সে মারা গেছেন ২৯ হাজার ৮১৩ জন এবং সুস্থ্য হয়েছেন ৭৫ হাজার ৬৪৯ জন।

সাউথ আফ্রিকায় মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৪৪ হাজার ২৬৪ জন। মারা গেছেন ২৫ হাজার ২৯ জন এবং সুস্থ্য হয়েছেন ৭০ হাজার ৬১৪ জন।

এদিকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও জনের ৪৫ মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হলো ১৭৮৩ জনের। একই সময় দেশে আরও ৪ হাজার ১৪ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। ফলে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৪১ হাজার ৮০১ জনে।

সোমবার দুপুরে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

দেশের ৬৮টি আরটি-পিসিআর ল্যাবের মধ্যে ৬৫টির পরীক্ষা তথ্য তুলে ধরে তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস শনাক্তে ১৪ হাজার ৪১৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আগের কিছু নমুনাসহ পরীক্ষা করা হয়েছে ১৭ হাজার ৮৩৭টি নমুনা। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ৭ লাখ ৪৮ হাজার ৩৪টিতে।

দেশে নতুন করে আরো দুই হাজার ৫৩ জন করোনারোগী সুস্থ হয়েছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৫৭ হাজার ৭৮০ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৫০ শতাংশ, এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ৯৬ শতাংশ। তবে শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ২৬ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় যারা মারা গেছেন তাদের বিশ্লেষণ তুলে ধরে নাসিমা সুলতানা বলেন, মৃত ৪৫ জনের মধ্যে ৩৬ পুরুষ এবং নয়জন নারী। তাদের বয়স বিশ্লেষণে জানানো হয়, মারা যাওয়াদের মধ্যে ২১ থেকে ৩০ বছরের দুজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের তিনজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের সাতজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৪ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের ছয়জন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের একজন এবং ৯১ থেকে ১০০ বছর বয়সসীমার একজন রয়েছেন।

মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগেরই বাসিন্দা রয়েছেন ২২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ১০ জন, খুলনায় পাঁচজন, সিলেট ও বরিশালে তিনজন করে এবং রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে মৃত্যুবরণ করেছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন ৩০ জন এবং বাড়িতে মারা গেছেন ১৪ জন এবং মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন একজন।

মন্তব্য করুন

Please Login to comment
avatar
  Subscribe  
Notify of