ব্রেকিং নিউজ

আপডেট জুলাই ১, ২০২০

ঢাকা শনিবার, ৪ জুলাই, ২০২০, ২০ আষাঢ়, ১৪২৭ , বর্ষাকাল, ১২ জিলক্বদ, ১৪৪১

করোনা: বিশ্বে ২৪ঘন্টায় আক্রান্ত ১লাখ ৭৭হাজার ৩৫২জন, মোট আক্রান্ত ১কোটি ০৫লাখ ৮৬হাজার ৫৯১ জন

এস এম আজাদ হোসেন

নিরাপদ নিউজ

আজ বুধবার (১ জুলাই) বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টা পর্যন্ত বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ০৫ লাখ ৮৬ হাজার ৫৯১ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ১ লাখ ৭৭ হাজার ৩৫২ জন। নতুন করে প্রাণ গেছে ৫ হাজার ৮৪৫ জনের। এ নিয়ে করোনারায় মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ৫ লাখ ১৩ হাজার ৯২৯ জন মানুষ। আর ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫৭ লাখ ৯৫ হাজার ৯৭১ জন।গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ্য হয়েছেন ০১ লাখ ৩১ হাজার ৪৭৮ জন।বিশ্বে বর্তমানে মধ্যম মানের আক্রান্ত ৪২ লাখ ১৮ হাজার ৯০৩ জন এবং গুরুতর অসুস্থ্য ৫৭ হাজার ৭৭৮ জন। যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্বে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ২৭ লাখ ২৭ হাজার ৮৫৩ জন।সবচেয়ে বেশি মৃত্যুও হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে ১ লাখ ৩০ হাজার ১২২ জন। আক্রান্তের মতো সুস্থ হওয়ার দিক থেকেও সবার শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এ পর্যন্ত অন্তত ১১ লাখ ৪৩ হাজার ৩৩৪ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। আক্রান্তের ও মৃতের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের পরেই উঠে এসেছে ব্রাজিল। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ লাখ ০৮ হাজার ৪৮৫ জন আর আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৯ হাজার ৬৫৬ জন। এখন পর্যন্ত ব্রাজিলে ৭ লাখ ৯০ হাজার ৪০ জন সুস্থ হয়েছেন। আক্রান্তে তৃতীয় অবস্থানে রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৪৭ হাজার ৮৪৯ জন। আর মারা গেছেন ০৯ হাজার ৩২০ জন।অপরদিকে সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ১২ হাজার ৬৫০ জন। প্রতিবেশী দেশ ভারত আক্রান্তের সংখ্যায় উঠে এসেছে ৪ নম্বরে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লাখ ৮৫ হাজার ৭৯২ জন, আর এখন পর্যন্ত মৃত্যু ১৭ হাজার ৪১০ জনের।ভারতে সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৪৭ হাজার ৯৭৯ জন। এর পরের অবস্থানে যুক্তরাজ্য, এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ১২ হাজার ৬৫৪ জন। মৃতের সংখ্যায় তৃতীয় দেশটিতে মারা গেছেন ৪৩ হাজার ৭৩০ জন। যুক্তরাজ্যের পর স্পেনে আক্রান্ত ২ লাখ ৯৬ হাজার ৩৫১ জন, মৃত্যু ২৮ হাজার ৩৫৫ জন আর সেরে উঠেছে ১ লাখ ৯৬ হাজার ৯৫৮ জন। পেরুতে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৮৫ হাজার ২১৩ জন, মোট মৃত্যু ৯ হাজার ৬৭৭ জন আর সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৭৪ হাজার ৫৩৫ জন। চিলিতে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৭৯ হাজার ৩৯৩ জন।মোট মৃত্যু ৫ হাজার ৬৮৮ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ২ লাখ ৪১ হাজার ২২৯ জন। ইতালিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৪০ হাজার ৫৭৮ জন।দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৩৪ হাজার ৭৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।আর ইতিমধ্যে ইতালিতে সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৯০ হাজার ২৪৮ জন। ইরানে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ২৭ হাজার ৬৬২ জন।মোট মৃত্যু ১০ হাজার ৮১৭ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৮৮ হাজার ৭৫৮ জন। মেক্সিকোতে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ২৬ হাজার ৮৯ জন।মোট মৃত্যু ২৭ হাজার ৭৬৯ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৩৪ হাজার ৯৫৭ জন। পাকিস্তানে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ০৯ হাজার ৩৩৭ জন।মোট মৃত্যু ৪ হাজার ৩০৪ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ৯৮ হাজার ৫০৩ জন। তুরস্কে মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৯৯ হাজার ৯০৬ জন।মোট মৃত্যু ৫ হাজার ১৩১ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৭৩ হাজার ১১১ জন। জার্মানিতে মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৯৫ হাজার ৮৩২ জন।মোট মৃত্যু ৯ হাজার ৫২ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৭৯ হাজার ১০০ জন। সৌদিআরবে মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৯০ হাজার ৮২৩ জন।মোট মৃত্যু ১ হাজার ৬৪৯ জনের এবং সুস্থ্য হয়েছেন ১ লাখ ৩০ হাজার ৭৬৬ জন। ফ্রান্সে মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৬৪ হাজার ৮০১ জন।মৃত্যুতে পঞ্চম অবস্থানে থাকা ফ্রান্সে মারা গেছেন ২৯ হাজার ৮৪৩ জন এবং সুস্থ্য হয়েছেন ৭৬ হাজার ২৭৪ জন। সাউথ আফ্রিকায় মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৫১ হাজার ২০৯ জন। মারা গেছেন ২ হাজার ৬৫৭ জন এবং সুস্থ্য হয়েছেন ৭৩ হাজার ৫৪৩ জন। এদিকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সর্বোচ্চ আরও ৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত এটিই সর্বোচ্চ মৃত্যু। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হলো ১৮৪৭ জনের। একই সময়ে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরও তিন হাজার ৬৮২ জন। ফলে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ৪৫ হাজার ৪৮৩ জনে। মঙ্গলবার দুপুরে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। দেশের ৬৮টি আরটি-পিসিআর ল্যাবের মধ্যে ৬৬টির পরীক্ষা তথ্য তুলে ধরে তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস শনাক্তে ১৮ হাজার ৮৬৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে ১৮ হাজার ৪২৬টি নমুনা। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ৭ লাখ ৬৬ হাজার ৪০৭টিতে। দেশে নতুন করে আরো এক হাজার ৮৪৪ জন করোনারোগী সুস্থ হয়েছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৫৯ হাজার ৬২৪ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৯৮ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৯৮ শতাংশ, এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ৯৮ শতাংশ। তবে শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ২৭ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় যারা মারা গেছেন তাদের বিশ্লেষণ তুলে ধরে নাসিমা সুলতানা বলেন, মৃত ৬৪ জনের মধ্যে ৫২ পুরুষ এবং ১২ জন নারী। তাদের বয়স বিশ্লেষণে জানানো হয়, মারা যাওয়াদের মধ্যে ৩১ থেকে ৪০ বছরের সাতজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ছয়জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ২১ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের ১১ জন এবং ৮১ থেকে ৯০ বছরের বছর বয়সসীমার তিনজন রয়েছেন। মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগেরই বাসিন্দা রয়েছেন ৩১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ১২ জন, খুলনা ও রাজশাহীতে সাতজন করে এবং সিলেট, বরিশালে ও ময়মনসিংহে দুজন করে মৃত্যুবরণ করেছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন ৫১ জন এবং বাড়িতে থেকে মারা গেছেন ১৩ জন।

মন্তব্য করুন

Please Login to comment
avatar
  Subscribe  
Notify of