ব্রেকিং নিউজ

আপডেট জুলাই ২, ২০২০

ঢাকা শনিবার, ৪ জুলাই, ২০২০, ২০ আষাঢ়, ১৪২৭ , বর্ষাকাল, ১১ জিলক্বদ, ১৪৪১

সীমান্তে অবৈধ অনুপ্রবেশ, সিলেটের গোয়াইনঘাট সীমান্তে ভারতীয়দের গুলিতে এক বাংলাদেশি নিহত

সিলেট ব্যুরো

নিরাপদ নিউজ

সীমান্তে অবৈধ অনুপ্রবেশ করায় সিলেটের গোয়াইনঘাট সীমান্তে ভারতীয় খাসিয়াদের গুলিতে এক বাংলাদেশি নাগরিক নিহত ও অপর একজন আহত হয়েছেন। নিহত বাংলাদেশী নাগরিকের নাম মোঃ সিরাজ মিয়া (৪৫),সে সিলেট জেলার গোয়াইনঘাট উপজেলার হাদার পাড় এলাকার দমদমিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল ওয়াহিদ এর ছেলে। এ ঘটনায় একই গ্রামের মোঃ নাজিম উদ্দীন(৩৮) নামের আরেক বাংলাদেশি নাগরিক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) বেলা ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর ৪৮ ব্যাটিলিয়ান এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।বিজিবি সূত্রে জানা যায়,৪৮ বিজিবি’র অধীনস্থ গোয়াইনঘাট উপজেলার দমদমিয়া বিওপির দায়িত্বপূর্ন এলাকার সীমান্ত পিলার ১২৬১/১ ও ২ এর মধ্যবর্তী সংলগ্ন পাহাড়তলী গ্রাম এলাকা দিয়ে ৪জন বাংলাদেশী নাগরিক বৃহস্পতিবার বিকেল অনুমান সাড়ে ৪টার দিকে ভারতের প্রায় এক কিলোমিটার অভ্যন্তরে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করে। স্থানীয়দের বরাত দিয়ে বিজিবির কর্মকর্তা জানান, অসৎ উদ্দেশ্যে এই ৪জন বাংলাদেশী নাগরিক বৃহস্পতিবার বিকেলে গোপনে ভারতে প্রবেশ করে। তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে ভারতীয় খাসিয়ারা নাগরিকরা এদেরকে লক্ষ্য করে গুলি করে। এতে মোঃ সিরাজ মিয়া ও মোঃ নাজিম উদ্দীন গুলিবিদ্ধ অবস্থায় বাংলাদেশে প্রত্যাবর্তন করে।মোঃ সিরাজ মিয়া গুরুতর আহতাবস্থায় বাংলাদেশ সীমান্তে এসে মৃত্যুর কোলে লুটেপড়ে এবং গুলিবিদ্ধ মোঃ নাজিম উদ্দীন সহ অপর দুইজন পালিয়ে যান। গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আব্দুল আহাদ এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান ঘটনাটি পুলিশ জানার পর পরই ঘটনাস্থলে গিয়েছে,পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের প্রক্রিয়া করছে। তিনি বলেন সীমান্তে এ সকল অনভিপ্রেত ঘটনা রোধে বিজিবি ‘র সঙ্গে পুলিশ সীমান্তবর্তী স্হানীয় জনগনকে সচেতন করতে সকল সময় সক্রিয় আছে। কিছু লোক সীমান্ত আইন তোয়াক্কা না করে গোপনে ফন্দি করে অবৈধভাবে সীমানা লঙ্ঘন করে ভারতে অনুপ্রবেশ করে,যার ফলে এ ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটে। তিনি এ ব্যাপারে স্হানীয় জনগন ও জন প্রতিনিধিদেরকে আরো সচেতন ও দায়িত্বশীল হওয়ার আহবান জানান। এ ব্যাপারে ৪৮ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্ণেল আহমেদ ইউসুফ জামিল পিএসসি বলেন, সীমান্ত এলাকায় টহলরত বিজিবি সদস্যরা স্হানীয় জনগণকে অবৈধভাবে সীমান্ত পারাপার হয়ে ভারতে গমনের ব্যাপারে এবং অনাকাঙ্খিত ঘটনা রোধকল্পে বিজিবির পক্ষ থেকে সীমান্তবর্তী জনসাধারণ সহ স্হানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের নিকট সর্বদাই সহযোগিতার আবেদন জানিয়ে আসছে। তিনি আরো জানান যে, সীমান্তে অনুপ্রবেশ ও চোরাচালান ঠেকাতে বিজিবি সকল সময়ই সতর্ক রয়েছে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ সীমান্তে বিজিবি টহল এবং নজরদারি আরও বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী মানুষদের এ কাজে সংশ্লিষ্ট করা হয়েছে। যাতে কেউ অবৈধভাবে সীমান্ত পেরোতে না পারে এ জন্য অনেকগুলো অস্থায়ী ক্যাম্পও সতর্কতা মুলক প্রচারণা সহ নানা উদ্যোগ নিয়েছে বিজিবি। তবুও কিছু মানুষ বিজিবি’র অগোচরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অবৈধভাবে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে এসব অনাকাঙ্খিত ঘটনার জন্ম দিচ্ছে,যাহা কোনভাবেই কাম্য নয়। তিনি সীমান্তবর্তী বাংলাদেশী সকল নাগরিকদেরকে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে এ ব্যাপারে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান।

মন্তব্য করুন

Please Login to comment
avatar
  Subscribe  
Notify of