ব্রেকিং নিউজ

আপডেট আগস্ট ১২, ২০২০

ঢাকা সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১৩ আশ্বিন, ১৪২৭, শরৎকাল, ১০ সফর, ১৪৪২

বিজ্ঞাপন

হয়তো আমি অযোগ্য, তাই তারা অভিনয়ে ডাকে না: আব্দুল আজিজ

অনলাইন ডেস্ক

নিরাপদ নিউজ

মঞ্চ, রেডিও, টিভি ও সিনেমা; সবখানেই গেল কয়েক দশক ধরে জনপ্রিয় অভিনেতা আব্দুল আজিজ। রেডিওর প্রায় ১৬০০ নাটকে অভিনয় করেছেন। টিভিতে ৬ শতাধিক আর ১০০টিরও বেশি সিনেমার সফল অভিনেতা। মঞ্চেও সরব উপস্থিতি। তিনি একজন নির্মাতা, লেখকও।

বিজ্ঞাপন

এত গুণ যার, এত যার ক্যারিয়ারের বৈচিত্র ও বিস্তৃতি সেই মানুষ আজ আড়ালে। কোথাও নেই তিনি। কেউ মনেও রাখেনি তাকে। বলছি অভিনেতা আব্দুল আজিজের কথা।

এই অভিনেতা জানালেন, ১৯৬৭ সালে সৌরভ আউয়াল পরিচালিত ‘অপরিচিত’ সিনেমার মাধ্যমে রূপালি পর্দায় অভিষেক হয় তার। ছোট একটি চরিত্র। তবে সিনেমায় নিয়মিত হন ১৯৭৫ সাল থেকে প্রয়াত চাষী নজরুল ইসলামের হাত ধরে। তারপর সোনা বউ, হাজার বছর ধরে, আরশি নগর, রুপ নগর, মাটির কসম, দিপু নাম্বার টু, রাবেয়াসহ ১০০টিরও বেশি সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। বেশির ভাগ সিনেমাতে মন্দ মানুষ হিসেবেই হাজির হতেন।

১৯৭৫ সাল থেকে টেলিভিশনেও নিয়মিত কাজ শুরু করেন। বিটিভির শিশুদের হাসির সিরিয়াল জুই জোনাকী, হিরামনসহ অনেক নাটকে কাজ করেছেন। টেলিভিশনে সব মিলিয়ে ৬ শতাধিক নাটকে অভিনয় করেছেন। ‘ইত্যাদি’রও নিয়মিত একজন শিল্পী তিনি। ইত্যাদি’র প্রথম পর্ব প্রচার হয় ১৯৮৯ সালে। সেই সময় থেকেই তিনি আছেন এখনো।

এর বাইরে একেবারেই অনিয়মিত। বলা চলে দেখাই যায় না তাকে। কেন? তিনি অভিনয় করতে চান না নাকি অভিনয়ের ডাক পান না?

এবিষয়ে আব্দুল আজিজ বলেন, আসলে আমি অভিনয় কমিয়ে দিয়েছি ব্যাপারটি তা নয়। হয়তো এখন যারা প্রযোজক ও পরিচালক তারা প্রয়োজন মনে করেন না আমাকে। হয়তো আমি অযোগ্য, তাই তারা অভিনয়ে ডাকে না।

তাছাড়া এখন তো পারিবারিক গল্পের নাটক অনেক কম। সেটা তো দেখি আমরা। এখন তো বেশিরভাগ নাটকই শুধু নায়ক-নায়িকা আর তার দুই একজন চ্যালা ফ্যালা নিয়ে হয়ে যাচ্ছে। কাজ করবো বা কাজের সুযোগ পাবো সেই চরিত্রই তো নেই। সিস্টেমটাই আসলে পাল্টে গেছে। এখন নাটকে বাজেট কম, তাই প্রযোজক অতো বড়সড়ো কোনো আয়োজন করে নাটক বানাতে চান না। শর্টকাটে শেষ করেন। সেজন্যই আমার মতো শিল্পীদের সুযোগ কমে গেছে বা বলা যায় শেষ হয়ে গেছে। ওই সিস্টেম শর্ট করতে গিয়ে গল্প, আয়োজন ও চরিত্র কাট হয়ে গেছে আর কী। সেইসঙ্গে দর্শকের চাহিদাও কিন্তু কেটে ফেলা হয়েছে। যেভাবে আগে দেখতাম পারিবারিক গল্প হতো এবং বিশেষ যে চরিত্রগুলো খালা, খালু, মামা, মামী, চাচা, চাচী ইত্যাদি চরিত্র থাকতো। দর্শক সবগুলো চরিত্রই পছন্দ করতেন। কিন্তু এখন এসবের কিচ্ছু নেই।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x