ব্রেকিং নিউজ

আপডেট ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২১

ঢাকা শুক্রবার, ৫ মার্চ, ২০২১, ২০ ফাল্গুন, ১৪২৭, বসন্তকাল, ২০ রজব, ১৪৪২

বিজ্ঞাপন

সিলেট নগরীতে সিসিকের সাথে শ্রমিকদের সংঘর্ষ: অস্ত্রসহ আটক ১

জহিরুল ইসলাম মিশু,সিলেট ব্যুরো

নিরাপদ নিউজ

সিলেট মহানগরীর নগরীর চৌহাট্টায় অবৈধ স্ট্যান্ড উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়রসহ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের উপর হামলা চালিয়েছেন মাইক্রোবাস শ্রমিকরা। এসময় একটি পিস্তুলসহ এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আটক যুবকের নাম ফাহাদ। সে নগরীর পীরমহল্লা এলাকার বাসিন্দা বলে জানিয়েছে। এসময় তার পিস্তলের ভিতর থেকে ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরের দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বেশ কয়েকটি গাড়ির গ্লাস ভাংচুর করা হয়েছে। এছাড়াও উভয় পক্ষের মধ্যে ২/৩ জন আহত রয়েছেন বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে। এসময় চারপাশে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

এসময় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র কর্মকর্তা কর্মচারী নিয়ে সিভিল সার্জন অফিস লাগোয়া মাইক্রোবাসের অবৈধ স্ট্যান্ড উচ্ছেদ করতে চাইলে শ্রমিকরা বাকবিতন্ডা শুরু করেন। এক পর্যায় শ্রমিকরা অতর্কিত হামলা চালান বলে জানান সিলেট সিটি কর্পোরেশন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।
অপরদিকে শ্রমিকদের দাবি, সিসিক কর্তৃপক্ষ জোরপূর্বক উচ্ছেদের চেষ্টা চালান এবং গাড়ি ভাংচুর করে। এসময় শ্রমিকরা উত্তেজিত হয়ে হামলা চালান।

সরেজমিনে প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সিসিক কর্তৃপক্ষ স্ট্যান্ড উচ্ছেদ করতে চাইলে শ্রমিকরা স্ট্যান্ডের জন্য জায়গা চান। এক পর্যায় শ্রমিকরা জায়গা না দিলে গাড়ি নিয়ে সরবেন না বলে জানালে দেখা দেয় উত্তেজনা। পরে সিসিকের পক্ষ থেকে উচ্ছেদ কাজ শুরু করতে চাইলে শ্রমিকরা ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালান। এসময় পুলিশ চেষ্টা করে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে।
এদিকে শ্রমিকনেতা আলী আকবর রাজন দাবি করেন, আমরা সরে যেতে রাজি। কিন্তু অন্য কোথাও আমাদের গাড়িগুলো রাখার জন্য কিছু জায়গা দেওয়া হোক।

মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, সিলেটে বিদ্যুৎলাইন অপসারণ, ফুটপাত সংস্কার ও সড়ক সম্প্রসারণ কাজ চলছে। এই কাজ এখন সমাপ্তির পথে। চৌহাট্টা এলাকায় যখন ফুটপাতের কাজ শুরু করেছিলাম তখন এখানকার অবৈধ স্ট্যান্ড সরাতে বসেছিলাম। কিন্তু শ্রমিকরা বারবার টালবাহানা করছিলো। শেষমেষ তারা সময় চেয়েছিলো। আমরা সময় দিয়েছি। তারা পার্কিংয়ের জন্য আলাদা জায়গা চেয়েছে। আমি তাদের নগরের ভেতরে খালি জায়গা খুঁজতে বলেছি। এ ব্যাপারে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি।

মেয়র বলেন, আজ সকালে হঠাৎ করে তারা সড়কের উন্নয়ন কাজ বন্ধ করে দেয়। আমি সাথেসাথে বিষয়টি পুলিশ ও জেলা প্রশাসনকে জানাই। পরে কাউন্সিলর, ম্যাজিস্ট্রেট সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের নিয়ে এখানে আসি। এখানে আসার পর তারা আচমকা ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। হামলা চালায়। এতে কাউন্সিলর, পুলিশসহ অনেকে আহত হয়েছেন। আমার দিকেও একজন বন্দুক নিয়ে তেড়ে এসেছিলো। পরে পুলিশ তাকে আটক করে।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x