ব্রেকিং নিউজ

আপডেট জুন ৯, ২০২১

ঢাকা সোমবার, ২১ জুন, ২০২১, ৭ আষাঢ়, ১৪২৮, বর্ষাকাল, ১০ জিলকদ, ১৪৪২

বিজ্ঞাপন

সমন্বিত উদ্যোগই পারে সড়কে মৃত্যুর হার কমিয়ে আনতে: বিয়ানি বাজার শাখার জুম মিটিংয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিরাপদ নিউজ

আজ বিকাল ৪টায় নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) বিয়ানি বাজার শাখার জুম মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) বিয়ানি বাজার আহবায়ক কমিটির আহবায়ক সুফিয়ান আহমদ এর সঞ্চলনায় জুম মিটিংয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন নিসচা চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন নিসচা কেন্দ্রীয় মহাসচিব সৈয়দ এহসান-উল হক কামাল, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আজাদ হোসেন ও সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক জহিরুল ইসলাম মিশু।

বিজ্ঞাপন

সভায় কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দদের সাথে বিয়ানি বাজার শাখার কর্মিদের পরিচিতি পর্ব শেষে শাখা কমিটির বিগত ১বছরের কার্যক্রম তুলে ধরা হয়।

এসময় কমিটির আহবায়ক সুফিয়ান আহমদ বলেন, তাঁরা বর্তমানে আহবায়ক কমিটিতে আছেন এখনো সংগঠনটি পুর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমদোন পায়নি। সংগঠনের কাজে তাঁরা নতুন এছাড়া করোনার প্রকোপে তাদের কাজের অগ্রগতি আরো বাধাগ্রস্ত হয়। এরপরও তারা গাছ বিতরণসহ সড়ক নিরাপত্তায় সচেতনতাবৃদ্ধিতে লিফলেট বিতরণ করেছেন। এসময় আহবায়ক সুফিয়ান আহমদ নিসচা চেয়ারম্যানের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, আমাদের সংগঠন নতুন হওয়াতে আমরা স্থানীয় জনপ্রশাসন এর সাথে তেমন সক্ষতা গড়ে তুলতে পারিনি। তিনি জানান কেন্দ্রীয়ভাবে যদি তাদের প্রশাসনের সাথে যোগাযোগের ব্যবস্থা করে দেয়া যায় তাহলে তারা প্রশাসনকে সাথে নিয়ে সামনের দিনে সড়ক নিরাপত্তায় কাজ করে যেতে পারবেন।

জুম মিটিংয়ে উক্ত শাখার সকলের মতামত শুনে দিকনির্দেশনামুলক বক্তব্য রাখেন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। তিনি তার বক্তব্যে বলেন সড়কে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা কোনো একটি নির্দিষ্ট পক্ষের দায়িত্ব নয়। সরকার, নীতিনির্ধারক, পুলিশ, গণমাধ্যম, ব্যক্তিপর্যায়সহ সব পক্ষেরই এ বিষয়ে দায়িত্ব রয়েছে। সব পক্ষের সচেতনতা, জনসচেতনতা এবং সমন্বিত উদ্যোগই পারে সড়কে মৃত্যুর হার কমিয়ে আনতে। প্রায় সারাদেশে আমাদের জেলা/উপজেলাগুলোতে শাখা রয়েছে এই শাখা সংগঠনের কর্মিবৃন্দরা যদি নিজ নিজ উদ্যোগে নিজ নিজ জেলার দুর্ঘটনাগুলো কমিয়ে আনতে কাজ করে যান অবশ্যই সার্বিকভাবে সারা দেশের দুর্ঘটনার হার কমে আসবে।

বিয়ানি বাজার কমিটির আহবায়ক সুফিয়ান আহমদ এর প্রস্তাবের পরিপেক্ষিতে নিসচা চেয়াম্যান বলেন, আমরা দেশের জেলা/উপজেলাতে দুর্ঘটনার হার কমাতে শাখা গঠন করে থাকি যেন এই শাখাগুলো তাদের স্থানীয় দুর্ঘটনাগুলো কমিয়ে আনতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। শাখা কমিটি গুলো কাজ, তাদের নিজ নিজ এলাকার দুর্ঘটনার কারণ খুজে বের করা এবং দুর্ঘটনা কমিয়ে আনতে যথাযথ ভূমিকা পালন করা। শাখা কমিটির নিজ এলাকার কাজ নিজেদেরকেই করতে হবে। এখানে কেন্দ্রীয় ভাবে প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করিয়ে দেয়ার থেকে আপনারা নিজেরা আপনাদের কাজের দক্ষতার মাধ্যমে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করবেন এবং তাদের সাথে সমন্নয় করে দুর্ঘটনারোধে সামনের দিনে কাজ করে যাবেন। পরিশেষে ইলিয়াস কাঞ্চন উক্ত কমিটির সকল কর্মিদের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন এবং করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সড়ক নিরাপত্তামুলক কাজ করার আহবান জানান।

এসময় বিশেষ অতিথি নিসচা কেন্দ্রীয় মহাসচিব সৈয়দ এহসান-উল হক কামাল বলেন, একটি কমিটিতে শুধু লিফলেট বিতরণ আর কেন্দ্রীয় নির্দেশ না আশা পর্যন্ত চুপ করে বসে থাকলে চলবেনা। কেন্দ্রীয় নির্দেশ যা থাকবে তা অবশ্যই পালন করতে হবে পাশাপাশি নিজের উদ্যোগে নিজ নিজ প্রচেষ্টায় কাজ করতে হবে। আপনারা পর্যবেক্ষন করবেন কেন আপনার শহরে দুর্ঘটনাবেশী হয় কি তার কারণ সেটি খুঁজে বের করবেন সকল কর্মিরা গবেষণা করবেন। এবং এই দুর্ঘটনা থেকে মুক্তির উপায় কি তা বের করে সেই মোতাবেগ কাজ করবেন। আশা করি আপনারা সকলে সততার সাথে কাজ করলে আপনাদের স্থানীয় এলাকার দুর্ঘটনা অনেকাংশে কমে আসবে।

সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আজাদ হোসেন কর্মিদের উদ্দেশ্যে বলেন, কমিটি গতিশীল করতে গেলে প্রতি মাসে অন্তত একটি করে মিটিং করতে হবে। সকল কর্মিদের সংগঠনে এক্টিভ থাকতে হবে। কমিটির সকল সদস্যগণ সম্মিলিতভাবে যে কোন কাজ করলে অবশ্যই সে কাজে সফলতা আসবে। তিনি মাসিক মিটিংয়ে কর্মপরিকল্পনা করার পরামর্শ প্রদান করেন।

সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক জহিরুল ইসলাম মিশু বলেন, আমি সর্বক্ষন যথাসাধ্যমতো চেষ্টা করে যাব নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) বিয়ানি বাজার এই নতুন শাখার প্রতিটি কাজ বাস্তবায়নে। এছাড়া তিনি নতুন কমিটির সকলকে বলেন আপনারা যেহেতু নতুন কাজের অভিজ্ঞতা কম একারণে যখন আপনাদের সংগঠন বিষয়ে যা কিছু তথ্য জানার থাকবে আমাকে বলবেন আমি সবসময় আপনাদের পাশে আছি।

উল্লেখ্য, নিসচা শাখা সংগঠনগুলোর কাজের অগ্রগতি বৃদ্ধি এবং শাখা সংগঠনের নেতৃবৃন্দদের দিকনির্দেশনা দেওয়ার লক্ষে নিসচা কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্তে এই জুম মিটিং এর আয়োজন করা হয়। করোনাকালে কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে প্রতিনিধিবৃন্দরা শাখা সংগঠনগুলোর জেলা/উপজেলা অঞ্চলে যেতে না পাড়ায় জুম মিটিংয়ের মাধ্যমে সকল অনুমদিত শাখা সংগঠনের নেতৃবৃন্দদের সাথে ধারাবাহিক ভাবে এরকম জুম মিটিং এর মাধ্যমে যোগাযোগ রাখা এবং দিকনির্দেশনা দেয়া হবে বলে জানিয়েছে নিসচা কেন্দ্রীয় কমিটি।

জুম মিটিং এ অংশগ্রহন করেন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) বিয়ানি বাজার শাখার যুগ্ম আহবায়ক কামরুল হাসান লোদী রাজু, আব্দুল্লাহ আল নোমান ও মাহবুবুর রহমান নাহিদ। সদস্য সচিব শফিউর রহমান, সদস্য – আব্দুল্লাহ আল হাসান মামুন, শহিদুল ইসলাম সাজু, আবু তাহের রাজু, শামীম আহমেদ, আমিনুল ইসলাম বুলবুল,কবির হোসেন, শাকরান হোসেন, মোহাম্মদ রাহাত, সোহাগ আহমদ, মোহাম্মদ রাফি, মাসুদ আহমেদ, মোহাম্মদ সাদিক প্রমুখ।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x