English

16 C
Dhaka
মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৮, ২০২২

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন: এক সতীনকে জেতাতে দুই সতীনের প্রচারণা!

- Advertisement -spot_img

সর্ব সাধারণের মুখে একটি প্রবাদ রয়েছে, ‘সতীন মানে শত্রু। ’ তবে এমন প্রবাদটি ভুল প্রমাণ করেছেন পঞ্চগড়ের তিন সতীন।
সাংসারিক বিভিন্ন সমস্যার মধ্যেও একসঙ্গে থাকায় এবার ইউপি নির্বাচনে একে অপরের পাশে দাঁড়িয়েছেন তারা। দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে (ইউপি) সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে বড় সতীনকে জেতাতে দেখা গেছে তিন সতীনের ব্যতিক্রমী প্রচারণা।
নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তৃতীয় ধাপের তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৮ নভেম্বর পঞ্চগড় সদর ও আটোয়ারী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন (ইউপি) অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনকে ঘিরে আটোয়ারী উপজেলার ৪ নম্বর রাধানগর ইউপি নির্বাচনে (৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডে) সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে শাহিনা বেগম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে জানা যায়।
এদিকে শাহিনাকে নির্বাচিত করতেই পুরো দমে মাঠে নেমেছেন তার অন্য দুই সতীন। এখনো মনোনয়নপত্র দাখিল না হলেও প্রচারণায় তিন সতীন একত্রিত হয়ে দিনরাত নির্বাচনী এলাকা চষে বেড়াচ্ছেন ও দোয়া চাইছেন।
সরেজমিনে ঘুরে জানা যায়, প্রতিদিন সকালে তিন সতীন শাহিনা আক্তার, আকলিমা বেগম ও রত্না বেগম স্বামী দেলোয়ার হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে গণসংযোগে বের হন। সন্ধ্যা পর্যন্ত জয়ের আশায় ওয়ার্ডের বাড়ি বাড়ি ক্লান্তিহীনভাবে ছুটে বেড়াচ্ছেন। তিন সতীন একই সঙ্গে ভোটারের কাছে গিয়ে গণসংযোগের বিষয়টি ভোটারদের মধ্যেও আগ্রহের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। সতীনদের এমন সম্পর্ক অনেকটাই অবাক করার মত, সতীনদের দাবি কেবল নির্বাচন উপলক্ষে নয় তাদের তিনজনের মধ্যে মধুর সম্পর্ক আগে থেকেই।
কথা হয় মেঝো সতীন আকলিমা বেগমের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমার স্বামী মোট ৩টা বিয়ে করেছেন। সবাই আমরা একসঙ্গে বসবাস করি। এবারের ইউপি নির্বাচনে আমার আপা (বড় সতীন) ভোটে নেমেছেন। তাই তাকে জয়যুক্ত করতে আমরা একত্রিত হয়ে প্রচারণা করছি।
ছোট সতীন রত্না বেগম বলেন, আমরা তিন সতীন মিলে স্বামীকে নিয়ে গণসংযোগ করতেছি। সবাই বিষয়টি ভিন্নভাবে দেখছেন। ইতোমধ্যে অনেকটা সাড়া পেয়েছি।
সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদ প্রার্থী শাহিনা বেগম বলেন, সুখে দুঃখে আমরা তিন সতীন একে অপরের পাশে দাঁড়াই। এবারের নির্বাচনে দুই সতীন ও স্বামীর পরামর্শে ভোটে দাঁড়ায়েছি। মানুষের মধ্যে নিজেকে পরিচিত করতে সবার কাছে গিয়ে দোয়া চাচ্ছি। ভোট উপলক্ষে প্রচারণায় এলাকার মানুষের অনেকটাই সহযোগিতা পেয়েছি। ইনশাআল্লাহ জয়যুক্ত হবো।
তিন সতীনের স্বামী মৎস্যচাষি দেলোয়ার হোসেন। এক মেয়ে ও তিন ছেলে সন্তান রয়েছে তাদের। স্বামীর দাবি তিন সতীন বৈঠক করে হাসি মুখে সমর্থন দেন শাহিনা বেগমকে ভোট করার।
স্বামী দেলোয়ার হোসেন  বলেন, তিন বউ ও বাচ্চাদের নিয়ে অনেক সুখে শান্তিতে আছি। আমার প্রথম স্ত্রী শাহিনার প্রতি জনগণের সমর্থন রয়েছে। স্থানীয় ও ভোটাররা আমাদের পাশে রয়েছে। ইনশাআল্লাহ আমরা জয়ী হবো।
এলাকাবাসীও জানান তিন সতীনের সংসার হলেও কোনোদিন বিবাদে জড়াননি তারা। তার জয়ের ব্যাপারের আশাবাদী ভোটাররাও।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
সর্বশেষ

আল কোরআন ও আল হাদিস

- Advertisement -spot_img
এ বিভাগে আরো দেখুন