English

34 C
Dhaka
বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪
- Advertisement -

আজ সাকিব-তামিমের মুখোমুখি লড়াই

- Advertisements -

নাসিম রুমি: জাতীয় দলের হয়ে একসঙ্গে অনেকবারই ২২ গজ মাতিয়েছেন বাংলাদেশের দুই তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। যদিও দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে সবসময় একে অন্যের প্রতিপক্ষ হয়েই খেলেছেন। তবে এবার দুজনের প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঝাঁজটা অন্যরকম। বিশ্বকাপ দলের তামিমের না থাকা, সাকিবের সঙ্গে দ্বন্দ্বের গুঞ্জন এবং সংবাদমাধ্যমে বিরূপ মন্তব্য দুজনের উত্তপ্ত সম্পর্কে ঘি ঢেলেছে। ফলে খেলার মাঠেও দুজনের দ্বৈরথ দেখার প্রত্যাশায় ক্রিকেট ভক্তরা।

চলমান বিপিএলেও এবার প্রতিপক্ষ হয়ে মাঠে নামছেন তামিম-সাকিব। আজ(শনিবার) দুপুর দেড়টায় মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে রংপুর রাইডার্স এবং ফরচুন বরিশাল মুখোমুখি হবে। তামিম-সাকিবের কারণে এই ম্যাচটি ঘিরে আগে থেকেই শুরু হয়েছে বাড়তি উন্মাদনা। নিজের ওপর চাপ কমাতে রংপুরের হয়ে অধিনায়কত্ব করছেন না সাকিব, ফলে দলটিকে নেতৃত্ব দেবেন নুরুল হাসান সোহান। অন্যদিকে, সাকিবের সাবেক ফ্র্যাঞ্চাইজি বরিশালের অধিনায়ক তামিম।

ভারতের মাটিতে অনুষ্ঠিত সর্বশেষ ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে নতুন করে সাকিব-তামিমের বিরোধ আলোচনায় আসে। সতীর্থ ক্রিকেটারকে নিয়ে তামিম সরাসরি কিছু না বললেও, বিশ্বকাপের আগে এক সাক্ষাৎকারে টাইগার ওপেনারকে নিয়ে বিষোদগার করেছিলেন সাকিব। বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা না পাওয়া তামিম নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে হোম এবং অ্যাওয়ে সিরিজেও খেলেননি। ফলে দীর্ঘ সময় পর তিনি মাঠে ফিরবেন আজকের ম্যাচ দিয়ে।

অন্যদিকে, বিশ্বকাপের মাঝে আঙুলে চিড় ধরায় ছিটকে গিয়েছিলেন সাকিব। টাইগার এই অধিনায়কও কিউইদের বিপক্ষে সিরিজে দলের বাইরে ছিলেন। মাঝে তিনি ব্যস্ত সময় পার করেছেন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কাজে। যেখানে মাগুরা-১ আসন থেকে প্রথমবারের মতো নির্বাচিতও হয়েছেন সাকিব। তারও এবার মাঠে ফেরার পালা। আঙুলের চোট সেরে তিনি নির্বাচনের পর থেকে প্রায় নিয়মিত অনুশীলন করে আসছেন। মাঝে চোখের রেটিনায় সমস্যা হওয়ায় উড়াল দিয়েছিলেন লন্ডনে। সেখান থেকে ফিরে গতকাল ফের অনুশীলনে দেখা মেলে সাকিবের।

রোমাঞ্চকর মাচের আগে গতকাল ফরচুন বরিশালের অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ বলছিলেন, ‘আমরা তো এই রকম কখনোই চিন্তা করি না। আপনি যেটা বললেন সাকিব ভাই ভার্সেস তামিম ভাই যে লড়াই, আপনি যার সঙ্গে খেলেন না কেন— তারা কিন্তু প্রতিপক্ষ। সেটা আপনি যে টিমের সঙ্গেই খেলেন না কেন। আবার যখন একসঙ্গে খেলেন, তখন সেই প্রতিপক্ষ হয়ে যায় টিমমেট। ক্রিকেট খেলায় আপনি যারই প্রতিপক্ষ হন না কেন, সেই আপনার প্রতিপক্ষ এবং মাঠে কিন্তু কেউ কাউকে ছাড় দেন না। সেটা যেই হোক।’

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন