English

32 C
Dhaka
শনিবার, অক্টোবর ১, ২০২২
- Advertisement -

খারাপের একটা সীমা থাকে: ‘ক্ষুব্ধ’ মুশফিকুর রহিম

- Advertisements -

২০১২ সালে দুরন্ত রাজশাহীর হয়ে বিপিএলে খেলা শুরু মুশফিকুর রহিমের। অধিনায়ক হিসেবে দলকে তুলেছিলেন সেরা চারে। এরপর সিলেট রয়্যালস, বরিশাল বুলস, রাজশাহী কিংস, চিটাগং ভাইকিংসকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। কোনোবারই শিরোপা ছোঁয়া হয়নি তার। গতবার তার নেতৃত্বে খুলনা প্রথমবার উঠেছিল ফাইনালে। আন্দ্রে রাসেলের দলের কাছে হেরে মুশফিকের স্বপ্ন ভেঙে যায়।

Advertisements

এবারও এলিমিনেটর ম্যাচ থেকে তার দল খুলনা টাইগার্স বিদায় নেয়। সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) চারে থেকেই বিপিএল শেষ হয় খুলনার।
রোমাঞ্চকর ম্যাচে আগে ব্যাটিং করে ওয়ালটনের ৪৪ বলে ৮৯ রানের বিধ্বংসী ইনিংসে চট্টগ্রাম ১৮৯ রানের পুঁজি পায় মুশফিকের দল। ডু অর ডাই ম্যাচে খুলনা দারুণ জবাব দেয়। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান আন্দ্রে ফ্লেচার ৫৮ বলে ৮০ করেন। মুশফিক ২৯ বলে করেন ৪৩। ইয়াসির ২৪ বলে ৪৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দলের প্রয়োজন মিটিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত ৭ রানের সমীকরণ মেলাতে পারেনি খুলনা।

Advertisements

ম্যাচ শেষে নিজের ক্ষোভ উগড়ে দেন মুশফিক, ‘আরও ভালো করার সুযোগ ছিল। আমাদের মূল ধস হয়েছে বোলিংয়ে। যে কোনো প্রতিপক্ষের বিপক্ষে শেষ ১০ ওভারে ১৩০ রানের মতো (আসলে ১২৩) নেওয়া প্রত্যাশিত নয়। উইকেট যতই ভালো হোক। আমাদের বোলাররা ১০ শতাংশ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারেনি।’

‘ভালোর একটা সীমা আছে, খারাপের একটা সীমা থাকে। ওই সীমাটা যদি আমরা কমিয়ে আনতে পারতাম, তাহলে হয়তো ১৭০, এমনকি ১৮০ রানও ভিন্ন ব্যাপার হতো। আপনারা সেটাই দেখলেন, আমরা ৫-৬ রানে হেরে গেলাম। এমনি ১-২ রানে অনেক ম্যাচ হেরে যায় টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে, আর সেখানে তো…আমি মনে করি, ওই জায়গাতে খেলাটা ওরা সহজেই বের নিয়ে গেছে। আমরা চেষ্টা করেছি, কিন্তু বোলারদের হয়তো দায়িত্বটা আমি সেভাবে দিতে পারিনি এবং তারাও সেটা বাস্তবায়ন করতে পারেনি।’

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন