English

37 C
Dhaka
শনিবার, মে ২৫, ২০২৪
- Advertisement -

মাকে গাছে বেঁধে ছেলেকে পিটিয়ে হত্যা, ব্যাংক কর্মকর্তা আটক

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় মাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে ছেলেকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যাংক কর্মকর্তার পরিবারের বিরুদ্ধে। শনিবার (১৩ এপ্রিল) রাতে ছাগলনাইয়া উপজেলার বাথানিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে শনিবার রাতে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত নুর মোহাম্মদের (১৮) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নুর মোহাম্মদ নোয়াখালীর সুধারাম থানার আন্দার চর গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে। তিনি বাথানিয়া গ্রামে এক বাড়িতে কেয়ারটেকারের কাজ করতেন। টাকা চুরির অভিযোগে তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় রোববার (১৪ এপ্রিল) নিহত নুর মোহাম্মদের মা ছাগলনাইয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।অভিযুক্ত ব্যাংক কর্মকর্তা মঈন উদ্দিনকে আটক করেছে পুলিশ। সে ছাগলনাইয়া উপজেলার বাথানিয়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে।

নুর মোহাম্মদের মা বিবি খতিজা জানান, অভাবের কারণে চার বছর আগে নুর মোহাম্মদকে ব্যাংক কর্মকর্তা মঈন উদ্দিনেরর বাড়িতে কেয়ারটেকার হিসেবে দিয়ে যান তিনি। মাসিক বেতন ধরা হয়েছিল তার দুই হাজার টাকা। চার বছরে তাকে কখনো ছুটি দিত না ওই পরিবার। সেই ক্ষোভ থেকে গত ২৭ রমজানে ওই বাসা থেকে ৮০ হাজার টাকা ভর্তি একটা খাম নিয়ে নোয়াখালীর বাড়ি আসে নুর মোহাম্মদ।

বিবি খতিজা আরও জানান, বাড়ি যাওয়ার পর থেকে মোবাইলে হুমকি দিতে থাকেন মঈন উদ্দিনের পরিবারের সদস্যরা। তাদের হুমকিতে ঈদের পরদিন তিনি ছেলেকে নিয়ে ব্যাংক কর্মকর্তার বাড়িতে হাজির হন এবং ওই টাকা ফেরত দেন।

তিনি বলেন, বাড়িতে আসার পর মঈন উদ্দিনের চার ভাই তার ছেলেকে মারধর শুরু করেন। বাধা দিলে তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে। সারা রাত দফায় দফায় তার ছেলেকে মারধর করা হয়। পরদিনও মারধর করা হয়। শনিবার ১৩ এপ্রিল বিকেলে মারা যায় নুর মোহাম্মদ।

তিনি আরও বলেন, আমি তাদের কাছে ছেলের জীবন ভিক্ষা চেয়েছি। তাদের মন গলেনি। নির্যাতন করে, সারারাত ধরে পিটাতে পিটাতে আমার ছেলেকে মেরে ফেললো। এ হত্যার বিচার চাই।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন ছাগলনাইয়া থানার ওসি হাসান ইমাম।

তিনি জানান, শনিবার রাতে খবর পেয়ে ওই বাড়ি থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। টাকা চুরিকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। মরদেহের পিঠ, কোমর, হাত, পাসহ পুরো শরীর আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, আঘাতে তার মৃত্যু হয়েছে। তারপরও ময়নাতদন্ত ছাড়া মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাচ্ছে না। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় নিহতের মা বিবি খতিজা ছয়জনকে আসামি করে রোববার ছাগলনাইয়া থানায় মামলা করেছেন। ব্যাংক কর্মকর্তা মঈন উদ্দিনকে আটক করা হয়েছে। মারধরের কথা স্বীকার করেছে সে।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন