English

25 C
Dhaka
সোমবার, জানুয়ারি ২৪, ২০২২

চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে গৃহকর্ত্রীকে হত্যা, মা-ছেলে গ্রেপ্তার

- Advertisement -spot_img

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে গৃহকর্ত্রী হাজেরা বেগমকে (৮৫) হত্যার অভিযোগে করা মামলায় গৃহকর্মী ও তার ছেলেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টায় নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানার মাহমুদপুর এলাকায় থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, হবিগঞ্জ জেলার লাখাই উপজেলার মৃত আব্দুল হামিদের স্ত্রী ভিংরাজ বিবি ওরফে বেঙ্গাই বানু বেঙ্গি (৬০) ও তার ছেলে জয়নাল হোসেন (৩৫)। বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের গত ১৪ জানুয়ারি ভিংরাজ বিবি ওরফে বেঙ্গাই বানু বেঙ্গি বড়লেখা উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের বড়থল গ্রামের বৃদ্ধা হাজেরা বেগমের বাড়িতে নিজের অসহায়ত্বের কথা বলে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ চান। ভিংরাজ বিবি ওরফে বেঙ্গাই বানু স্বামী-সন্তান কেউ নেই বলায় হাজেরা বেগম ও তার ছেলে সেলিম আহমদের দয়া হয়। মানবিক কারণে তাই তারা ওই নারীকে ঘরের কাজের জন্য রেখে দেন। বৃদ্ধা হাজেরা বেগম দেশে বসবাস করলেও তার ১ ছেলে ও ৩ মেয়ে আমেরিকায় থাকেন। অপর ছেলে সেলিম আহমদ স্ত্রী-সন্তানসহ বড়থল গ্রামে বসতবাড়িতে থাকেন। তার সঙ্গে বৃদ্ধা হাজেরা বেগমও বসবাস করেন। গত ২২ জানুয়ারি দুপুরে হাজেরা বেগমের ছেলে সেলিম আহমদ বৃদ্ধা মা ও গৃহকর্মী ভিংরাজ বিবি ওরফে বেঙ্গাই বানু বেঙ্গিকে বাড়িতে রেখে স্ত্রী-সন্তানকে ডাক্তার দেখাতে বড়লেখায় যান। সন্ধ্যার পর তিনি বাড়ি ফিরে মাকে অজ্ঞান অবস্থায় খাটের ওপর পড়ে থাকতে দেখেন। এ সময় গৃহকর্মী ভিংরাজ বিবিকে তিরি খুঁজে না পাননি। পরে দেখেন ঘরের জিনিসপত্র এলোমেলো এবং তার মায়ের পরণে থাকা এবং ঘরের বিভিন্ন আলমারিতে থাকা প্রায় ৯ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকাসহ প্রায় ৮ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে ওই গৃহকর্মী পালিয়ে গেছেন।

এদিকে অচেতন অবস্থায় গৃহকর্ত্রী হাজেরা বেগমকে উদ্ধার করে সিলেট ইবনে সিনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা সংকটাপর্ণ হওয়ায় সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে আবার সিলেটে মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২০ ফেব্রুয়ারি তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এই ঘটনায় হাজেরা বেগমের ছেলে সেলিম আহমদ বাদী হয়ে বড়লেখা থানায় মামলা করেন। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে অভিযানে নামে পুলিশ।

প্রযুক্তির সহায়তায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বড়লেখা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুব্রত কুমার দাস আসামিদের অবস্থান শনাক্ত করেন। এরপর তিনি গতকাল বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানার মাহমুদপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ভিংরাজ বিবি ওরফে বেঙ্গাই বানু বেঙ্গি ও তার ছেলে জয়নাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বড়লেখা থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) সুব্রত কুমার দাস বৃহস্পতিবার বিকেলে বলেন, ভিংরাজ বিবি ওরফে বেঙ্গাই বানু বেঙ্গি ও তার ছেলে জয়নাল হোসেনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালতে তারা ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। আদালতকে তারা জানিয়েছেন, পূর্বপরিকল্পিতভাবে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে গৃহকর্ত্রী হাজেরা বেগমকে তারা অজ্ঞান করে স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা নিয়ে পালিয়ে যান। জবানবন্দিগ্রহণ শেষে আদালতের নির্দেশে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
সর্বশেষ
- Advertisement -spot_img
এ বিভাগে আরো দেখুন