English

33 C
Dhaka
শনিবার, জুলাই ২০, ২০২৪
- Advertisement -

চট্টগ্রামের বিনোদন কেন্দ্রে মানুষের ঢল কোথাও মানা হচ্ছে না করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে মানুষের ঢল নেমেছে। তবে কোথাও করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। গতকাল সরকারি ছুটির দিনের বিকেলে চট্টগ্রামের বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে মানুষের ভিড় জমেছে। বিশেষ করে পতেঙ্গা সৈকত, শাহ আমানত সেতু, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা ও ফয়’স লেকে লোকে লোকারণ্য ছিল। সকালে সামান্য বৃষ্টি থাকলেও বিকেলে বৃষ্টি না থাকায় মানুষ স্বাচ্ছন্দ্যে ঘুরাফেরা করেছে।

গতকাল বিকেলে দেখা গেছে, নগরীর প্রবেশমুখ শাহ আমানত সেতুর দুই পাশের লেনে লোকে রুটইটম্বুর ছিল। অনেকে চলন্ত গাড়ি থামিয়ে পরিবার নিয়ে সময় কাটাচ্ছে। কেউ তুলছে সেলফি। আলাউল নামের এক তরুণ বলেন, নতুন ব্রিজ (শাহ আমানত সেতু) থেকে বন্দরের সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। পাশাপাশি শত শত জাহাজ ব্রিজের দুই পাশে কর্ণফুলী নদীতে অবস্থান করছে। বিকেলে সূর্যাস্ত পর্যন্ত এখানকার প্রকৃতিতে সুন্দর আবহ বিরাজ করে। তবে গাড়ির প্রকট শব্দের হরণ মানুষের আনন্দ উপভোগের ভাগড়া বসায়। এখানকার আনন্দে করোনা কোন বাধা নয় বলে জানান এ তরুণ।
স্ত্রী, দুই সন্তানকে নিয়ে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় ঘুরতে যান ব্যাংকার আজিম উদ্দিন। তিনি বলেন, করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে দীর্ঘ সাড়ে পাঁচ মাস বাসা থেকে পরিবার নিয়ে বের হইনি। এখন বিনোদনকেন্দ্রগুলো খুলেছে। তাই পরিবার নিয়ে চিড়িয়াখানা দেখতে এসেছি। চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা আগের চেয়ে অনেক সুন্দর হয়েছে। পশুপাখির সংখ্যাও বেড়েছে। তিনি বলেন, এখানে মাস্ক নিয়ে প্রবেশ করতে হচ্ছে। তবে সাধারণ মানুষের মধ্যে করোনা নিয়ে কোন ভয় আছে বলে মনে হচ্ছে না। বেশিরভাগ মানুষ মাস্ক ব্যবহারের ক্ষেত্রেও সচেতন নয়।

পতেঙ্গা সৈকতেও ছিল দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড়। বৃষ্টিহীন বিকেলে সাগরের ঢেউয়ে আনন্দ খুঁজেছে হাজার হাজার মানুষ। ছোট, বড় সবাইকে নিয়ে সৈকতে বেড়াতে গেছে অসংখ্য মানুষ। নব দম্পতিরা গিয়েছেন সাগরের শীতল বায়ুর পরশ পেতে।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন