English

32 C
Dhaka
বৃহস্পতিবার, মে ১৯, ২০২২
- Advertisement -

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসকের দায়িত্ব নিলেন সুজন

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

৬ আগস্ট ২০২০ বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) নবনিযুক্ত প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন মেয়র নির্বাচিত না হওয়া পর্যন্ত তিনি প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাবেন।সদ্য সাবেক মেয়র আজম নাছির উদ্দিনের কাছ থেকে তিনি দায়িত্ব বুঝে নেন।
স্থানীয় সরকার মন্ত্রাণালয় গত মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, ত্যাগী রাজনীতিক খোরশেদ আলম সুজনকে চট্টগ্রাম সিটি প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে।
চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা খোরশেদ আলম সুজন চট্টগ্রাম ইন্টারমিডিয়েট কলেজ (বর্তমানে হাজী মুহাম্মদ মহসীন সরকারি কলেজ) ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের প্রথমে সাধারণ সম্পাদক ও পরে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজতত্ত্বে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পর লাইব্রেরি সায়েন্সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালে ১৯৮৬ সালে জাতীয় ছাত্রলীগের সভাপতি হন। ছাত্রলীগের তৎকালীন সভাপতি সদ্য প্রয়াত আবদুল মান্নানসহ শীর্ষ ছাত্রনেতারা মিলে সংগ্রাম কমিটি গড়ে তোলেন। জিয়া, এরশাদ, খালেদা, জামায়াত-শিবির, মৌলবাদ, সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী সব আন্দোলনে তিনি নেতৃত্ব দেন।
নবম শ্রেণিতে পড়ার সময়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে রাজনীতিতে হাতেখড়ি হয় সুজনের। ৫০ বছরের বর্ণিল রাজনীতিক ক্যারিয়ারে অনেকবার সংসদ সদস্য পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী হলেও জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের সুযোগ পাননি। কিন্তু হতাশ হননি রাজনীতির মাঠেই ছিলেন। জাতীয় ছাত্রলীগ ও বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক লীগ (বাকশাল) বিলুপ্ত হওয়ার পর মহিউদ্দিন চৌধুরী সঙ্গে যুক্ত হন। প্রায় ত্রিশ বছর তার ছায়া সঙ্গী হিসাবে কাজ করেন। মহিউদ্দিন চৌধুরীর ১৭ বছর মেয়র থাকাকালীন অঘোষিত রাজনৈতিক সচিব ছিলেন খোরশেদ আলম সুজন। চট্টগ্রাম বন্দরের নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে মহিউদ্দিন চৌধুরীর সব আন্দোলনের অন্যতম সম্মূখ যোদ্ধা হিসাবে কাজ করেন। তিনবার এমপি, একবার মেয়র হওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত সজ্জন পরিছন্ন পোড় খাওয়া এই নেতার মূল্যায়ন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
উল্লেখ, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে মনোনয়ন পাওয়া রেজাউল করিমও মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারি। এক কথায় এখন সময় প্রয়াত মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারিদের!
প্রসঙ্গত,২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।চট্টগ্রামকেমেগাসিটি ও জলাবদ্ধতা নিরসনসহ উন্নয়নের ৩৬ দফা অঙ্গিকার নিয়ে নগরপিতার আসন গ্রহণ করেছিলেন আ জ ম নাছির উদ্দীন।এতে ৪ লাখ ৭৫ হাজার ৩৬১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন।ওই বছরের ৬ মে শপথ নেন। মেয়র নাছির দায়িত্ব নেন ২৬ জুলাই। স্থানীয় সরকার আইন অনুযায়ী, কর্পোরেশনের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয় ৬ আগস্ট। সে হিসাবে ৬ আগস্ট আ.জ.ম নাছিরের মেয়াদ শেষ হচ্ছে।
চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদ্য সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন চসিকের বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে নতুন প্রশাসক সুজনকে অভিনন্দন জানান। নিজের ফেসবুক পেজেও একটি অভিনন্দন বার্তা পোস্ট করেন তিনি।
অন্যদিকে, প্রশাসক পদে নিয়োগ পাওয়ায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও চসিক মেয়র পদপ্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা এম রেজাউল করিম চৌধুরী।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন