English

32 C
Dhaka
সোমবার, মে ১৬, ২০২২
- Advertisement -

অপপ্রচার থেকে সাবধান: ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

গত সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকের প্রারম্ভিক ভাষণে অপপ্রচারের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক প্রতিবাদের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর এই আহ্বান অত্যন্ত সময়োপযোগী। বিশেষ করে এই করোনাকালে যখন দেশ নতুন করে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে, তখন দেশের অভ্যন্তরে এমন কিছু ঘটনা ঘটছে, যা নতুন আশঙ্কার জন্ম দিচ্ছে।
করোনাভাইরাস সংক্রমণে বিশ্ব অর্থনীতি টালমাটাল, তখন প্রবৃদ্ধিতে আশা জাগিয়েছে বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল বলছে, চলতি অর্থবছরে মাথাপিছু জিডিপির হিসাবে দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষ এবং এশিয়ার মধ্যে চতুর্থ হতে চলেছে বাংলাদেশ। জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসি এবং সরকারের পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, ২০২৪ সালের মধ্যে বাংলাদেশের স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে যেতে যে স্বপ্ন রয়েছে, তাতে করোনা কোনো প্রভাব ফেলবে না।
মাথাপিছু জাতীয় আয়, মানবসম্পদ ও অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা—এই তিন সূচকেই লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে আইএমএফ-বিশ্বব্যাংকের যৌথ বার্ষিক সভায় প্রকাশ করা আইএমএফ ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক আউটলুক প্রতিবেদনে আইএমএফ বলছে, চলতি বছর অর্থাৎ ২০২০ সালে সবচেয়ে বেশি জিডিপির প্রবৃদ্ধি অর্জন করা শীর্ষ তিনটি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ হবে একটি।
অর্থাৎ বিশ্ব অর্থনীতি যখন নেতিবাচক ধারায়, তখন ইতিবাচক পথেই হাঁটছে বাংলাদেশ। আর ঠিক এই সময়ে কখনো সন্দেহ, কখনো ছোট অপরাধ, কখনো বিপদ-শঙ্কার গুজব আবার কখনো তুচ্ছ কারণে বিরোধ-প্রতিহিংসায় মানুষকে নির্মমভাবে হত্যার ঘটনা ঘটে চলেছে। কখনো পরিকল্পিতভাবে দলবদ্ধ মানুষ আবার কখনো বিচ্ছিন্ন থেকেও অনেকে হয়ে উঠছে নির্দয় খুনি।
দেশে গণপিটুনির নামে নির্যাতনে হত্যার ঘটনা বাড়ছে। ধর্ম অবমাননার গুজব রটিয়ে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার পর তাঁর লাশও পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। এ ধরনের ঘটনা এটিই যে প্রথম, তা নয়। অতীতেও এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে সামাজিক অস্থিরতা সৃষ্টির অপচেষ্টা হয়েছে। অতীতের বেশ কিছু ঘটনার মতো আবারও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অপব্যবহার করে নানা রকম গুজব, সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক বক্তব্য ছড়ানোসহ নানা ধরনের বিচ্ছিন্ন ঘটনা জনজীবনকে অস্থিরতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে।
কোথাও কোথাও আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়ার ঘটনা ঘটছে। দুষ্কৃতকারীরা অশুভ উদ্দেশ্য হাসিল করতেই যে এমন ঘটনা ঘটাচ্ছে, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। সে বিষয়েই কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি যথার্থই বলেছেন, দেশ নিয়ে, সমাজ নিয়ে যখন ষড়যন্ত্র সফল হয় না, তখনই একটি শ্রেণি সমালোচনামুখর হয়। একটি মহল দেশের সুন্দর পরিবেশ নষ্ট করে সংঘাত সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।
এ ধরনের সব ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন