English

31 C
Dhaka
বুধবার, এপ্রিল ২৪, ২০২৪
- Advertisement -

পানির প্রবাহ ঠিক রাখুন: খালে বাঁধ দিয়ে ইটভাটার রাস্তা

- Advertisements -
সারা দেশেই ছোট নদী বা খালগুলোর অবস্থা বেশি শোচনীয়। বহু নদী ও খাল এরই মধ্যে অস্তিত্ব হারিয়েছে। দখল, দূষণ ও ভরাট চলছে একই সঙ্গে। এসব নদী-খাল রক্ষায় প্রশাসনের উদ্যোগও অত্যন্ত সীমিত।
এমনই একটি খবর প্রকাশিত হয়েছে। এতে বলা হয়, বরগুনার আমতলী উপজেলার কুকুয়া ইউনিয়নের চুনাখালী ও চরখালী গ্রামের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া খেজুরতলা খালে বাঁধ দিয়ে ইট পরিবহন ও যাতায়াতের পথ বানানো হয়েছে। এতে বর্ষায় পানি নিষ্কাশন ব্যাহত হয়। জলাবদ্ধতায় ফসল নষ্ট হয়।
মানুষের দুর্ভোগ হয়। অন্যদিকে শীতকালে রবিশস্য ও বোরো ধান আবাদের জন্য পর্যাপ্ত পানি পাওয়া যায় না। ভুক্তভোগী কৃষকরা দ্রুত বাঁধটি অপসারণ করার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন। কিন্তু প্রভাবশালী ইটভাটা মালিকদের তৈরি করা বাঁধ বহাল তবিয়তে রয়ে গেছে।
কৃষকদের আবেদনের সূত্রে জানা যায়, ৩০ বছর আগে উপজেলার কুকুয়া ইউনিয়নের চুনাখালী ও চরখালী গ্রামের কৃষকদের চাষাবাদ ও পানি নিষ্কাশনের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) খেজুরতলা খাল ও চুনাখালী নদীর সংযোগস্থলে একটি কালভার্ট নির্মাণ করে সেচ সুবিধার ব্যবস্থা করে।
এর ফলে শুকনা মৌসুমে নদী থেকে পানি ওঠানো যেত এবং বর্ষা মৌসুমে পানি নিষ্কাশন করা যেত। এক বছর আগে স্থানীয় দুই প্রভাবশালী কেআরএম নামের ইটভাটায় যাতায়াতের জন্য ওই খালের মাঝ বরাবর একটি অংশ মাটি দিয়ে ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ করেন।
এতে সিমেন্টের তৈরি দুটি চাকা বা রিং দেওয়া হলেও তা দিয়ে পর্যাপ্ত পানি প্রবাহিত হতে পারে না। ফলে খালের একটি অংশে জোয়ার-ভাটার পানি ওঠানামা বন্ধ হয়ে যায়।
বাঁধের কারণে পানি নিষ্কাশিত না হওয়ায় গত বর্ষায় ব্যাপক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয় এবং রোপা আমন ধান পচে নষ্ট হয়ে যায়। শুষ্ক মৌসুমেও খালের একটি অংশের কৃষকরা সেচ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। খালের ওপর ব্যক্তিগত উদ্যোগে কেউ এভাবে বাঁধ দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করতে পারেন না।
পানির প্রবাহ বন্ধ করতে পারেন না। এটি সম্পূর্ণরূপে বেআইনি কাজ। এই বাঁধ অপসারণের জন্য কৃষকদের আবেদনের প্রয়োজন হয় না। নিজ দায়িত্বেই প্রশাসনের তা অপসারণ করা প্রয়োজন। কিন্তু কৃষকদের আবেদনের পরও তা অপসারিত না হওয়া অত্যন্ত দুঃখজনক।
আমরা আশা করি, স্থানীয় প্রশাসন দ্রুততম সময়ে বাঁধটি অপসারণের উদ্যোগ নেবে। পাশাপাশি পাউবোর পক্ষ থেকে তাদের তৈরি করা সেচ সুবিধা সংরক্ষণে খাল খননসহ পর্যাপ্ত উদ্যোগ নিতে হবে।
সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন