English

30 C
Dhaka
শনিবার, মে ২৮, ২০২২
- Advertisement -

সাইবার অপরাধ প্রতিরোধ: আইন প্রণয়ন জরুরি

- Advertisements -

সরকার অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তথ্য-প্রযুক্তিতে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে। শহরের সীমা ছাড়িয়ে প্রত্যন্ত গ্রামেও পৌঁছে গেছে ইন্টারনেটসেবা। এখন দেশে-বিদেশে যোগাযোগ করা কোনো কঠিন কাজ নয়। হাতের মুঠোয় থাকা একটি মোবাইল ফোনই সব ধরনের সেবা পৌঁছে দিতে পারছে। মোবাইল ফোন এখন অনেকেরই উপার্জনের মাধ্যম হয়ে উঠেছে। ঘরে বসে আয় করার মাধ্যম হিসেবে তথ্য-প্রযুক্তি অনেক তরুণের ভাগ্য ফিরিয়েছে। শুধু তা-ই নয়, অনেককে নতুন স্বপ্ন দেখিয়েছে এই তথ্য-প্রযুক্তি, সবুজ অর্থনীতি সম্প্রসারণে বড় ভূমিকা রেখেছে।

Advertisements

গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হচ্ছে, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ রেগুলেটরি কমিশনের সর্বশেষ প্রতিবেদন অনুযায়ী দেশে এখন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের সংযোগসংখ্যা ৯৮ লাখ ১০ হাজার। মোবাইল অপারেটরদের তারহীন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১১ কোটি ৭৩ লাখ ১০ হাজার। বিটিআরসির প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী কভিড-১৯ সংক্রমণ শুরুর পর ১৪ মাসে দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ১৪ শতাংশ। এ সময় ২১ শতাংশের বেশি বেড়েছে ব্রডব্যান্ড ব্যবহারকারী।

আবার এই তথ্য-প্রযুক্তিকে কোনো কোনো মহল থেকে ব্যবহার করা হচ্ছে নেতিবাচকভাবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে বিদেশে বসে একটি গোষ্ঠী রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। বিদেশে বসে একটি ইস্যু তুলে ধরে সেটিকে বুস্ট করে ভাইরাল করা হয়। দেশে তাদের অনুসারীরা সেগুলো ছড়িয়ে দেয়। গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরেই বলা হয়েছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় পা রেখে জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদ বিস্তৃত হচ্ছে এমন স্পর্শকাতর তথ্যও রয়েছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীগুলোর কাছে।

Advertisements

সম্প্রতি এই প্ল্যাটফর্মগুলো ব্যবহার করে বিদেশে নারীপাচারের মতো ঘটনায় তোলপাড় হয়েছে। বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার করে গুজব ও উসকানি ছড়ানো হয়। সম্প্রতি সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স, তুরস্ক ও রাশিয়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণে নতুন আইন প্রণয়ন করেছে। এসব দেশের আইন পর্যালোচনা করে বাংলাদেশেও নতুন আইন প্রণয়নের চিন্তা করছে সরকার। এ ধরনের একটি আইন প্রণয়ন করা গেলে অপপ্রচারকারীদের খুব সহজেই শনাক্ত ও বিচারের আওতায় আনা সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে। গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, প্রস্তাবিত আইনে বিদেশি সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মগুলোর ডাটা সেন্টার বা শাখা অফিস বাংলাদেশে স্থাপনের বাধ্যবাধকতার বিধান রাখা হচ্ছে।

দেশে দিন দিন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা যেমন বাড়ছে, তেমনি বাড়ছে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড। নেতিবাচক ও অপরাধমূলক কাজে বেশি ব্যবহার হওয়ায় সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে। কাজেই এ ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড নিয়ন্ত্রণে আইন থাকা দরকার।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন