English

24 C
Dhaka
সোমবার, মার্চ ৪, ২০২৪
- Advertisement -

হলের নির্মাণকাজ সম্পন্ন করুন: পাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ

- Advertisements -
আবাসিক হলের অভাবে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পাবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। দূর-দূরান্তে বাড়ি ভাড়া নিয়ে মেস করে থাকতে হয়। যাতায়াতে সময় ও অর্থ দুটিই বেশি যায়। বিশেষ করে বর্ষাকালে যাতায়াত ব্যয় ও দুর্ভোগ অনেক বেড়ে যায়।
সেই সঙ্গে রয়েছে নিরাপত্তার অভাব, বিশেষ করে ছাত্রীদের। অথচ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি হলের নির্মাণকাজ চলছে কচ্ছপ গতিতে। এ পর্যন্ত চারবার সময় বাড়ানো হয়েছে। শেষ কিস্তির মেয়াদও শেষ হচ্ছে চলতি ডিসেম্বরে।
চেষ্টা হচ্ছে আবারও অর্থাৎ পঞ্চম দফায় মেয়াদ বৃদ্ধির। কাজের গতি দেখে অনেকেই ধারণা করছে, এভাবে কাজ হলে নির্মাণকাজ শেষ করতে আরো কয়েকবার মেয়াদ বাড়াতে হতে পারে। শিক্ষার্থীদের প্রশ্ন, কর্তৃপক্ষের কাছে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগের কি কোনো মূল্য নেই?
প্রকল্পের কাজ সময়মতো শেষ না হওয়া শুধু পাবিপ্রবির সমস্যা নয়, এটি একটি জাতীয় সমস্যা। এর ফলে প্রকল্পের লক্ষ্য জনগোষ্ঠী যে শুধু উপকার থেকে বঞ্চিত হয়, তা-ই নয়, তাদের অনেক দুর্ভোগও পোহাতে হয়।
যেমন- পোহাচ্ছেন পাবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন দপ্তরের বরাত দিয়ে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, ২০১৮ সালে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটিতে (একনেক) দুটি আবাসিক হল নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হয়।
দুটি হলে এক হাজার করে মোট দুই হাজার শিক্ষার্থী থাকতে পারবেন। ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে নির্মাণকাজ শুরু হয়। কাজ শেষ করার কথা ছিল ২০২১ সালের জুলাই মাসে, কিন্তু চারবার সময় বৃদ্ধি করেও কাজ শেষ হচ্ছে না।
প্রকল্পের নথিতে বলা হয়েছে, দুটি হলের নির্মাণকাজ ১০ শতাংশ বাকি রয়েছে। কিন্তু প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অনেকের মতে, এখনো ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ কাজ বাকি রয়েছে।
প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের উপলব্ধি করতে হবে, ২০২১ সালের জুলাই মাসে কাজ শেষ না হওয়ায় আড়াই বছর ধরে দুই হাজারের বেশি শিক্ষার্থীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
রোদ ও বৃষ্টিতে কয়েক কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতায়াত করতে তাঁদের সময় ও অর্থের অপচয় হচ্ছে। দুর্ঘটনার ঝুঁকিও থাকছে। আমরা আশা করি, দ্রুত হল নির্মাণের কাজ শেষ করা হবে।
সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন