English

29 C
Dhaka
শনিবার, মার্চ ২, ২০২৪
- Advertisement -

সামাজিক নিরাপত্তা বাড়ুক: সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থা

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

উন্নত দেশের মতো বাংলাদেশেও মানুষের গড় আয়ু ক্রমেই বাড়ছে। বাড়ছে ষাট বা সত্তরোর্ধ্ব মানুষের সংখ্যা। এই বয়সে অনেকেই চাকরি থেকে অবসরে যান। অন্য কাজকর্ম করার মতো ক্ষমতাও থাকে না।

এই বয়োবৃদ্ধ জনগোষ্ঠীর অনেকেই এ সময় অত্যন্ত অসহায় হয়ে পড়েন। উপার্জন না থাকায় এ সময় অনেকে পরিবারের কাছেও অপাঙক্তেয় হয়ে পড়েন। অনেকে পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে অত্যন্ত কষ্টকর জীবন যাপন করতে বাধ্য হন। উন্নত দেশে এমন প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জন্য অনেক রকম কর্মসূচি চালু আছে।
চিকিৎসার ব্যবস্থা আছে। পেনশনেরও ব্যবস্থা আছে। বাংলাদেশে সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে পেনশনের ব্যবস্থা থাকলেও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বা শ্রমজীবী মানুষের জন্য তেমন কোনো ব্যবস্থা নেই। ফলে শেষ জীবনে তাঁরা অত্যন্ত অসহায় হয়ে পড়েন। এমন পরিপ্রেক্ষিতে সরকার সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থার উদ্যোগ নিয়েছে। বুধবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি ও অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি আশা করেন, আগামী ছয় মাস থেকে এক বছরের মধ্যে এই ব্যবস্থা চালু করা সম্ভব হবে। অনেক সমাজ বিশেষজ্ঞ মনে করেন, বাংলাদেশের বয়োবৃদ্ধ জনগোষ্ঠীর জন্য এটি হবে এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ।
প্রকাশিত খবর থেকে জানা যায়, প্রথম দিকে এই ব্যবস্থা ঐচ্ছিক হবে। অর্থাৎ ইচ্ছুক ব্যক্তিরা স্বেচ্ছায় এই পেনশন স্কিমে যুক্ত হতে পারবেন। পরবর্তীকালে এটা সবার জন্য বাধ্যতামূলক করা হবে। শুরুতে সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার কর্মীরা এই কর্মসূচির বাইরে থাকবেন। কারণ তাঁরা এরই মধ্যে পেনশন সুবিধা পাচ্ছেন। স্কিম অনুযায়ী ১৮ থেকে ৫০ বছর পর্যন্ত যে কেউ এই কর্মসূচিতে যুক্ত হতে পারবেন।
যিনি এতে যুক্ত হবেন তিনি পেনশন হিসেবে প্রতি মাসে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ বা চাঁদা জমা দেবেন। সরকারিভাবেও আনুপাতিক হারে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ সেই হিসাবে জমা হবে। আনুমানিক বিশ্লেষণে দেখা যায়, কেউ ১৮ বছর বয়স থেকে প্রতি মাসে এক হাজার টাকা জমা করা শুরু করলে ৬০ বছর বয়সের পর ৮০ বছর বয়স পর্যন্ত তিনি প্রতি মাসে ৬৪ হাজার ৭৭৬ টাকা পেনশন পাবেন। কেউ ৩০ বছর বয়সে এক হাজার টাকা করে জমা শুরু করে ৬০ বছর পর্যন্ত অব্যাহত রাখলে অবসরের পর প্রতি মাসে ১৮ হাজার ৯০৮ টাকা পেনশন পাবেন। চাঁদার পরিমাণ বেশি হলে আনুপাতিক হারে পেনশনের পরিমাণও বেশি হবে।
বাংলাদেশে এখন মানুষের গড় আয়ু ৭৩ বছর। ধারণা করা হচ্ছে, ২০৫০ সাল নাগাদ গড় আয়ু ৮০ বছরে উন্নীত হবে। ফলে বয়োবৃদ্ধ মানুষের সংখ্যাও বাড়বে। তাঁদের নিয়ে সমাজকে এখনই চিন্তা করতে হবে। তাঁদের সামাজিক ও অর্থনৈতিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। আমাদের বিশ্বাস, সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থা প্রবীণ জনগোষ্ঠীকে কিছুটা হলেও সেই নিরাপত্তা দিতে সক্ষম হবে। এরপর ক্রমেই প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জন্য সুযোগ-সুবিধার আরো সম্প্রসারণ করতে হবে।
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন