English

28 C
Dhaka
মঙ্গলবার, জুলাই ৫, ২০২২
- Advertisement -

নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন: ঈদের ছুটিতে সড়ক দুর্ঘটনা

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনার হার বরাবরই উদ্বেগজনক। নানা ব্যবস্থা নেওয়ার পরও প্রতিদিন সড়ক দুর্ঘটনা ঘটছে। নতুন আইন হয়েছে। মহাসড়কে শ্লথগতির যানবাহন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

ডিভাইডার বসানো হয়েছে। এর পরও সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধ করা সম্ভব হচ্ছে না।
অনেক পরিবারের এবারের ঈদের আনন্দ কেড়ে নিয়েছে সড়ক দুর্ঘটনা। গত কয়েক দিনে মহাসড়কে যে দুর্ঘটনাগুলো ঘটেছে, তা একেবারেই অনাকাঙ্ক্ষিত। ঈদের ছুটিতে গত সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত চার দিনে রাজধানীসহ ২৬ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে ৭৪ জন। এর মধ্যে রাজধানীতে ছয়জন, ময়মনসিংহে আটজন মারা গেছে। ঈদের পরদিন সড়কে প্রাণ গেছে ২১ জনের। বুধবার ও মঙ্গলবার রাতে রংপুর, পঞ্চগড়, মাদারীপুর, যশোর, নোয়াখালী, পাবনা, পটুয়াখালী, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, রাজবাড়ী, বরিশাল জেলায় এসব পৃথক সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। গত বৃহস্পতিবার সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয় ১২ জন।
সড়ক দুর্ঘটনা যেন এক নৈমিত্তিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে। সড়ক নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন, বেপরোয়া গতি, চালকের বেপরোয়া মানসিকতা, অদক্ষতা ও শারীরিক, মানসিক অসুস্থতা, বেতন ও কর্মঘণ্টা নির্দিষ্ট না থাকা, মহাসড়কে স্বল্পগতির যানবাহন চলাচল, তরুণ ও যুবকদের বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালানো, জনগণের মধ্যে ট্রাফিক আইন না মানার প্রবণতা, দুর্বল ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, বিআরটিএর সক্ষমতার ঘাটতি ইত্যাদি কারণে দুর্ঘটনা বাড়ছে।

এমন অনিরাপদ সড়ক আমরা চাই না। সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনতে, সড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষ কার্যকর ভূমিকা নেবে—এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

Advertisements
সর্বশেষ

আল কোরআন ও আল হাদিস

- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন