English

29 C
Dhaka
সোমবার, মে ২৩, ২০২২
- Advertisement -

দেশবরেণ্য কন্ঠশিল্পী মোঃ আব্দুল জব্বার-এর আজ তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

স্বাধীনবাংলা বেতার কেন্দ্রের মহান কন্ঠশিল্পী, গানের রাজা মোঃ আব্দুল জব্বার-এর আজ তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের ৩০ আগস্ট, ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন আব্দুল জব্বার। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর। প্রয়াত এই গুণি কন্ঠশিল্পীর স্মৃতির প্রতি জানাই গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি। তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করি।
মোঃ আব্দুল জব্বার ১৯৩৮ খ্রিষ্টাব্দের ১০ ফেব্রুয়ারি, কুষ্টিয়া জেলা, জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫৬ খ্রিষ্টাব্দে মেট্রিক পাস করেন তিনি। ছোটবেলা থেকে গানের প্রতি আগ্রহ থাকা আব্দুল জব্বার, সঙ্গীতে তালিম নেন ওস্তাদ ওসমান গনি এবং ওস্তাদ লুৎফুল হকের কাছে।
১৯৫৮ খ্রিষ্টাব্দ থেকে তৎকালীন পাকিস্তান রেডিওতে কন্ঠশিল্পী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন এবং গান গাওয়া শুরু করেন আব্দুল জব্বার । ১৯৬৪ খ্রিষ্টাব্দ থেকে টেলিভিশনে নিয়মিত গান গাওয়া শুরু করেন এবং জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী হিসেবে পরিচিতি পান।
১৯৬২ খ্রিষ্টাব্দে মুক্তিপ্রাপ্ত এহতেশাম পরিচালিত ‘নতুন সুর’ ছবিতে গান গাওয়ার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক শুরু করেন আব্দুল জব্বার।
তিনি আরো যেসব ছবিতে গান গেয়েছেন তারমধ্যে- এইতো জীবন, বন্ধন, সংগম, নবাব সিরাজউদ্দৌলা, উলঝন, এতটুকু আশা, ঢেউয়ের পর ঢেউ, ভানুমতি, ক খ গ ঘ ঙ, আলিঙ্গন, পীচঢালা পথ, দীপ নেভে নাই, বিনিময়, নায়িকা, ছদ্মবেশী, মোমের আলে, জীবন থেকে নেয়া, নাচের পুতুল, মায়ার সংসার, কত যে মিনতি, আপন পর, মানুষের মন, বাঘাবাঙ্গালী, স্বপ্ন দিয়ে ঘেরা, ঝড়ের পাখি, আলোর মিছিল, বেঈমান, সুখ দুঃখ, সূর্যগ্রহণ, যে আগুনে পুড়ি, এপার ওপার, অধিকার, সাধু শয়তান, স্মাগলার, মাস্তান, ঈমান, সংগ্রাম, মেঘের পর মেঘ, মতি মহল, তুফান, অঙ্গার, সারেং বৌ, সখী তুমি কার, কলমিলতা, অন্যতম।
মোঃ আব্দুল জব্বারের গাওয়া কিছু কালজয়ী জনপ্রিয় গান- তুমি কি দেখেছ কভু জীবনের পরাজয়…, সুচরিতা যেওনাকো আর কিছুক্ষণ থাকো…, পীচ ঢালা এই পথটারে ভালবেসেছি…, হে পৃথিবী আমার প্রশ্ন শোন …, ও..রে নীল দরিয়া, আমায় দে রে দে ছাড়িয়া…, সালাম সালাম হাজার সালাম…, জয় বাংলা বাংলার জয়…, আমি তো বন্ধু মাতাল নই…, শত্রু তুমি বন্ধু তুমি, তুমি আমার সাধনা…, এ মালিক-এ জাহান…, একবুক জ্বালা নিয়ে বন্ধু তুমি…, ও মনের ময়না…, বিদায় দাও গো বন্ধু তোমরা…, অমন করে যেও নাকো তুমি…, তারা ভরা রাতে…, ঐ দূর দিগন্তে…, সাথী আমার হলো নাতো কেউ…, তুমি সাত সাগরের ওপার হতে আমায় দেখেছ.., এই আঁকাবাঁকা পথ পেরিয়ে…, মন রেখেছি আমি তাঁর মনের আঙিনায়.., ইত্যাদি।
বিবিসিবাংলার শ্রোতাদের বিচারে সর্বকালের শ্রেষ্ঠ ২০টি বাংলা গানের তালিকায় মোঃ আব্দুল জব্বারের তিনটি গান স্থান পায়। গান তিনটি হলো- তুমি কি দেখেছ কভু জীবনের পরাজয়.., সালাম সালাম হাজার সালাম.., জয় বাংলা বাংলার জয়..।
আব্দুল জব্বার তাঁর কাজের স্বীকৃতিস্বরুপ পেয়েছেন অসংখ্য পুরস্কার ও সম্মাননা। তাঁর পাওয়া উল্লেখযোগ্য স্বীকৃতিসমূহ- বঙ্গবন্ধু স্বর্ণপদক-১৯৭৩, একুশে পদক-১৯৮০, স্বাধীনতা পুরস্কার-১৯৯৬, বাচসাস চলচ্চিত্র পুরস্কার, সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস-আজীবন সম্মাননা-২০১১ জহির রায়হান চলচ্চিত্র পুরস্কার।
কন্ঠশিল্পী-গীতিকার-সুরকার ও মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল জব্বার। সুলোলীত-শ্রুতিমধুর কন্ঠের অধিকারী আব্দুল জব্বারের কন্ঠের যাদুতে বিমোহিত হয়েছেন সকল বাংলা ভাষা-ভাষী সংগীতপ্রিয় মানুষ। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে বহু কালজয়ী জনপ্রিয় গানের কন্ঠশিল্পী তিনি। যাঁদের মেধায়, শ্রমে, ঘামে সমৃদ্ধ হয়েছে আমাদের গানের জগত, তিনি তাদের মধ্যে অন্যতম। তাঁর দরদী কন্ঠযাদুতে সমৃদ্ধ হয়েছে আমাদের চলচ্চিত্রশিল্প।
বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় মুক্তিযোদ্ধাদের মনোবল ও প্রেরণা যুগিয়েছে তাঁর গান। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে- সালাম সালাম হাজার সালাম ও জয় বাংলা বাংলার জয়’সহ অংসখ্য দেশাত্ববোধক ও মুক্তিযুদ্ধে উদ্বুদ্ধকরণ গানে কণ্ঠ দিয়েছেন মোঃ আব্দুল জব্বার। এছাড়া মুক্তিযুদ্ধের সময়কালে তিনি প্রখ্যাত ভারতীয় কণ্ঠশিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে মুম্বাইয়ের বিভিন্ন স্থানে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পক্ষে জনমত তৈরিতে বিশেষ ভূমিকা রাখেন।
সালাম সালাম হাজার সালাম- মোঃ আব্দুল জব্বার স্মরণে।
(তথ্যসূত্র ও ছবি- ইন্টারনেট থেকে নেয়া)

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন