English

31 C
Dhaka
বুধবার, জুন ১২, ২০২৪
- Advertisement -

‘বেদের মেয়ে জোসনা’ ভাবিয়েছিল সত্যজিৎকেও!

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

নাসিম রুমি: সাড়ে তিন দশক আগে ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ ঢাকাই সিনেমার ইতিহাসে এতটাই ‘হিট’ হয়েছিল যে সেটি পুনর্নিমাণ করতে হয় কলকাতাতেও; এবং সেখানেও সিনেমা ‘হিট’।

কিন্তু নতুন তথ্য হল- ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ সিনেমার ব্যাপক ‘সাফল্যের’ বিষয়টি ভাবিয়ে তুলেছিলে কিংবদন্তী নির্মাতা, লেখক, আঁকিয়ে সত্যজিৎ রায়কেও।

১৯৮৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘বেদের মেয়ে জোসনা’র বাজেট ছিল ২০ লাখ টাকা। মুক্তির পর প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ঘরে তোলে ২৫ কোটি টাকা। চিত্রনাট্য লেখার পাশাপাশি সিনেমটি পরিচালনা করেন তোজাম্মেল হক বকুল। আর প্রযোজনা করেছিল আনন্দমেলা কথাচিত্র।

ঢাকার সিনেমায় অভিনয় করেছেন ইলিয়াস কাঞ্চন, অঞ্জু ঘোষ, মিঠুন, ফারজানা ববি, নাসির খান, সাইফুদ্দিন, প্রবীর মিত্র, শওকত আকবর, রওশন জামিল, দিলদারসহ আর অনেকে।

বাংলাদেশের সাফল্য দেখে সিনেমাটি তৈরি করা হয় ভারতের কলকাতায়। ওই সিনেমায় নায়িকা ছিলেন অঞ্জু ঘোষ থাকলেও বদলে যান নায়ক। ইলিয়াস কাঞ্চনের পরিবর্তে অভিনয় করেন চিরঞ্জিত, কৌশিক বন্দোপাধ্যায়সহ আরও অনেকে।

এই সময় বলছে, কিছুদিন আগে কলকাতার চ্যানেল ‘জি বাংলার ‘অপুর সংসার’ নামের অনুষ্ঠানে গিয়ে সঞ্চালক শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের কাছে ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ করার সময়ের অভিজ্ঞতা এবং নানা অজানা ঘটনা মেলে ধরেন কৌশিক।

শাশ্বতর প্রশ্ন ছিল এই সিনেমাটি নিয়ে সত্যজিৎ কৌশিকের কাছে কি জানতে চেয়েছিলেন?

উত্তরে কৌশিক বলেন, “তিনি (সত্যজিৎ) বললেন ‘বেদের মেয়ে জোসনা’তো দারুণ সফল। কী ব্যাপার বল তো!”

উত্তর দেওয়ার আগে ‘ঢোঁক গিলেছিলেন’ জানিয়ে কৌশিক বলেন, “কি বলব বুঝে উঠতে পারছিলাম না। ওনাকে তো আর বলা যায় না যে সিনেমায় সাপ রয়েছে, জেলখানা আছে, নানা ভঙ্গির নাচগান আছে। বললাম, হ্যাঁ হিট হয়েছে। বড়ই নিম্নমানের ছবি তো…।”

কৌশিকের ভাষ্যে, তার ওই কথায় সত্যজিৎ তৎক্ষণাৎ তাকে থামিয়ে দিয়ে যা বলেছিলেন, সেটি তার জীবনে ‘বিরাট শিক্ষা’ হয়ে আছে।

“আমি নিম্নমানের বলার পর আমাকে থামিয়ে দিয়েছিলেন মানিকবাবু (সত্যজিৎ রায়)। সঙ্গে সঙ্গে তিনি বলেছিলেন, না না না। কোটি কোটি বাঙালি যে এই সিনেমাটা দেখছে, ভালোবেসেছে, তার নিশ্চয়ই কোনো কারণ রয়েছে। আর সেই কারণটা খুঁজে বার করার চেষ্টা কর।”

সত্যজিৎ রায়ের এই মন্তব্যই কৌশিকের ভাবনার নতুন দিগন্ত খুলে দেয় বলে জানান এই অভিনেতা।

কৌশিক বলেন, “আমার মনে হল কেউ আমার গালে কেউ সপাটে চড় মারল। আমি সত্যজিৎ রায়ের কথা থেকে একটা শিক্ষা ভেতরে নিলাম। এরপর থেকে কোনো নাটক-সিনেমা দেখে ভালো না লাগে আমি প্রকাশ্যে তা নিয়ে সমালোচনা করি না।”

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন