English

20 C
Dhaka
রবিবার, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২৩
- Advertisement -

সাবেক স্বামীকে প্রশংসায় ভাসালেন শ্রীলেখা

- Advertisements -

বিশ্ব বাবা দিবস ছিল গতকাল। পৃথিবীর সব সন্তানেরা তাদের বাবাকে নিয়ে লিখেছেন, বাবার সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন। কেউ হয়তো নস্টালজিয়ায় ভুগেছেন, কেউ হারিয়ে ফেলা বাবার জন্য চোখের জল ফেলেছেন। বাবা দিবসে নিজের মেয়ের বাবাকে নিয়ে কথা বললেন কলকাতার অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

শিলাদিত্যকে ভালোবেসেই বিয়ে করেছিলেন শ্রীলেখা। সেই সংসার এখন আর নেই। তাতে কি! নিজের প্রাক্তন স্বামী মেয়ের বাবা শিলাদিত্যকে ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা জানাতে ভুলেননি অভিনেত্রী। তিনি জানান, ‘শিলাদিত্য হলো সব থেকে ভালো বাবা। আজকের দিনটা শুধুই শিলাদিত্যর।’

Advertisements

প্রায় ১০ বছর হলো স্বামী শিলাদিত্যর সঙ্গে আইনি বিচ্ছেদ হলেও বাবা-মা উভয়েই তাদের মেয়েকে দেখভাল করেন বলে আনন্দবাজারকে জানিয়েছেন শ্রীলেখা।

তিনি বলেন, ‘আমি কোনোদিনই একা মাইয়াকে বড় করিনি। ২০১৩ সালে আমাদের আইনি বিচ্ছেদ হয়। তার আগের প্রায় দেড় বছর আলাদা থাকতাম। কোনোদিন কখনো আমরা মেয়েকে নিয়ে টানাটানি করিনি। সন্তানকে বড় করছি একসঙ্গেই।’

Advertisements

শ্রীলেখা জানান, ছোট থেকেই খুব বুঝদার তার মেয়ে। বাবা-মায়ের আলাদা থাকা নিয়ে কোনো কান্নাকাটিও করেনি। বাবা-মায়ের আলাদা থাকাটাকে নিজের মতো করেই মানতে শিখেছে মেয়েটা। তার কথায়, ‘কোনোদিন ওকে দেখিনি মন খারাপ করেছে, বা বলেছে কেন মা-বাবা একসঙ্গে থাকে না। নিজের মনে মনে যদি কষ্ট পেয়েও থাকে, নিজের মতো বুঝিয়েছে নিজেকে।’

অভিনেত্রী আরও জানান, ‘সপ্তাহের চার দিন আমার কাছে, তিন দিন বাবার কাছে থাকে মেয়ে। এই কয়েক দিন আগেই বাবার সঙ্গে পাহাড় ঘুরে এসেছে। বাবা বাড়িতে নামিয়ে দিয়ে গিয়েছেন আবার। কোনোদিন ইচ্ছে হলে একসঙ্গে খেতেও গিয়েছেন রেস্তোরাঁয়।’

শ্রীলেখা বলেন, ‘আমি একার কৃতিত্ব নিতেই পারব না। কারণ মেয়েকে আমি একা মানুষ করিনি। ওকে বড় করার আশি শতাংশ কৃতিত্ব শিলাদিত্যর। এই বিশেষ দিনটা শুধুমাত্র শিলাদিত্যরই হয়ে থাক।’

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন