English

34 C
Dhaka
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৬, ২০২২
- Advertisement -

সাফে মাঠে নামার অপেক্ষায় সাবিনা-মারিয়ারা

- Advertisements -
Advertisements

নেপাল আর ভুটানের ম্যাচ দিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে কাঠমান্ডুতে শুরু হয়েছে সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ। দক্ষিণ এশিয়ার মেয়েদের সবচেয়ে বড় ও মর্যাদার এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ খেলতে নামবে বুধবার। শুরুতেই প্রতিপক্ষ মালদ্বীপ। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে শুরু হবে ম্যাচটি।

Advertisements

দক্ষিণ এশিয়ার ৭ দেশ ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, মালদ্বীপ, নেপাল, ভুটান ও শ্রীলংকা অংশ নিচ্ছে এই টুর্নামেন্টে। ‌’এ’ গ্রুপে বাংলাদেশ খেলবে ভারত, পাকিস্তান ও মালদ্বীপের বিপক্ষে। অন্য গ্রুপে নেপাল, ভুটান ও শ্রীলংকা।

মেয়েদের সাফের এটি ষষ্ঠ আসর। আগের ৫ আসরের শিরোপাই জিতেছে ভারতের মেয়েরা। বাংলাদেশ একবার মাত্র ফাইনালে খেলেছে ২০১৬ সালে। এছাড়া তিনবার উঠেছিল সেমিফাইনালে।

এখনো শিরোপা জিততে না পারা সাবিনারা এবারও প্রাথমিক লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে ফাইনাল। ভারতকে টপ ফেবারিট ধরেই বাংলাদেশ বুধবার শুরু করতে যাচ্ছে ৭ জাতির এই টুর্নামেন্ট।

বাংলাদেশের জাতীয় দলটি তৈরি বেশিরভাগ বয়সভিত্তিক খেলোয়াড় দিয়ে। সাবিনা, কৃষ্ণা, সানজিদা ও স্বপ্না ছাড়া বাকি সবাই জুনিয়র দলের খেলোয়াড়। তবে কিছুদিন আগে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পর গোলাম রব্বানী ছোটনের এই দলটি ভালো কিছু করার আশা জাগিয়েছে।

নারী সাফে বাংলাদেশের প্রধান প্রতিপক্ষ ভারত। গ্রুপপর্বেই দেশটির সঙ্গে দেখা হয়ে যাবে সাবিনাদের। অভিজ্ঞতাসম্পূর্ণ দলটির বিপক্ষে নিজেদের সেরাটা দিয়ে জয়ের জন্য খেলার প্রত্যয়ের কথা শুনিয়েই নেপাল গেছে সাবিনা-মারিয়া মান্ডারা।

সাবিনাদের প্রধান কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন কাঠমান্ডু থেবে এক ডিভিওি বার্তায় বলেছেন, ‘সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ উপলক্ষ্যে আমরা ঢাকায় ৬ সপ্তাহের বেশি কঠোর অনুশীলন করে আসছি। মেয়েদের ফিটনেস লেভেল বেশ ভালো অবস্থায় আছে। এখানে এসেও আমরা ৩ দিন অনুশীলন করেছি। খুব ভালো অনুশীলন হয়েছে। মেয়েরা পুরোপুরিভাবেই প্রস্তুত। আমাদের মালদ্বীপের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ। একটা চ্যালেঞ্জ। আমি মনে করি সেটা ভালোভাবেই মোকাবিলা করতে পারবো। ভালো ফুটবল উপহার দেবো এবং জয় নিয়েই আমরা মাঠ ছাড়বো।’

নেপাল ও বাংলাদেশের আবহাওয়ায় রয়েছে পার্থক্য। এই প্রসঙ্গে গোলাম রব্বানী ছোটন বলেছেন, ‘আমরা যখন প্রথমদিন আসি, তখন আবহাওয়ায় পার্থক্য ছিল। তখন ঢাকায় গরম ছিল। এখানে আসার পর কিছুটা ঠান্ডা ছিল। এই তিনদিনে এই জায়গার আবহাওয়ার সঙ্গে অনেকটাই মানিয়ে নিয়েছে মেয়েরা। সেটা তারা মাঠে অনুশীলনে প্রমান করেছে। মেয়েরা এই ম্যাচের ওপর পুরোপুরি ফোকাস রেখেছে। তারা তাদের সর্বোচ্চ মনযোগটাই দিচ্ছে। আশা করি তারা কালকের ম্যাচে শুরু থেকেই সর্বোচ্চটা দেবে। কালকে বাংলাদেশ ভালো ফুটবল খেলবে এবং জয় নিয়ে মাঠ ছাড়বে।’

অধিনায়ক সাবিনা খাতুন বলেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ। প্রথম গেম শুরুর আগে আজকে লাস্ট সেশন অনুশীলন করলাম । মেয়েরা খুব উৎফুল্ল আছে। আশা করি যে, কালকে একটা ভালো ম্যাচ হবে। আমরা বাংলাদেশ থেকেই বলে এসেছি যে, দর্শকরা এখন মহিলা ফুটবলের ওপর আস্থা রেখেছে। তারা চায় এবং মনে করে যে, মেয়েরা এখন গোছালো ফুটবল খেলতে পারে। সব দল এখানে তাদের নিজস্ব একটা লক্ষ্য নিয়ে এসেছে। আমরাও এসেছি। আমাদের সবচেয়ে বড় হলো প্রথম ম্যাচটা ভালোভাবে শুরু করে, ভালো একটা রেজাল্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে চাই।’

মারিয়া মান্ডা বলেছেন, ‘আমরা দেশ থেকে সুস্থ্যভাবে নেপালে এসেছি। কালকে আমাদের ম্যাচ মালদ্বীপের বিপক্ষে। আজ লাস্ট সেশন অনুশীলন করলাম। আমরা সুন্দরভাবেই প্রস্তুতি নিয়েছি। আমরা ভাল করবো। এখানে আবহাওয়ার একটু পার্থক্য আছে। তবে আমরা আগেও নেপালে এসে খেলেছি। এখন ৩ দিন আগে এখানে এসেছি। এই আবহওয়ার সাথে আমাদের অ্যডজাস্ট হয়ে গেছে। আমাদের লক্ষ্য যে, প্রথম ও দ্বিতীয় ম্যাচ জিততে হবে। সেমিফাইনালে যেতে হলে আমাদের প্রথম ম্যাচটায় ভালো করতে হবে। আমাদের টার্গেট থাকবে ভালো কিছু করার।’

ফরোয়ার্ড সাজেদা খাতুন বলেছেন, ‘আমরা বাংলাদেশে অনেক ভালো প্র্যাকটিস করে এসেছি। অনেক হার্ডওয়ার্ক করেছি। এখানে এসেও অনেক ভালো প্র্যাকটিস করেছি। আমরা কালকের ম্যাচের জন্য প্রস্তুত। কালকের ম্যাচে ভালো করবো ইনশাল্লাহ।’

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন