English

32 C
Dhaka
শুক্রবার, জুলাই ১, ২০২২
- Advertisement -

‘বিধিনিষেধ তুলে দেওয়া বোকামি’: সতর্ক করে জানাল ডাব্লিউএইচও

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

করোনাভাইরাস মহামারির দুই বছর হয়ে গেছে। এখনও জানা নেই, কবে শেষ হবে এ বিপদ। এ অবস্থায় আমেরিকা-ইউরোপের অনেক দেশ ঘোষণা করেছে, অতিমারিকে সঙ্গে নিয়েই বাঁচতে হবে। এই যুক্তিতে করোনা-বিধি তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে তারা।

তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) সতর্ক থাকতে বলছে। বিজ্ঞানী ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের জন্য আরো কঠিন সময় আসতে পারে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি।
ডাব্লিউএইচও-র প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথনের বক্তব্য, এখনো অনেক পথ হাঁটা বাকি। একটি মার্কিন সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে করোনা অতিমারি নিয়ে চলমান রাজনীতি নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন সৌম্য। সাধারণ মানুষের মন রাখতে, ভোট-ব্যাঙ্ক বাঁচাতে করোনা-বিধি শিথিল করে দিচ্ছে বহু দেশ। কিন্তু এখনই অতিমারি শেষ হওয়ার কোনও সম্ভাবনা দেখছেন না বিশেষজ্ঞেরা।
সৌম্য বলেন, ‘আমার মনে হয় না, কেউ বলতে পারবেন কবে অতিমারি শেষ হবে। দয়া করে বলবেন না, অতিমারি শেষ হয়ে গেছে। সমস্ত করোনা-বিধি তুলে দেওয়া বোকামি হবে। অন্তত ২০২২ সালের শেষ পর্যন্ত এই সব বিধি মেনে চলাই উচিত। যেকোনো জায়গায় নতুন ধরন তৈরি হতে পারে। একটু ভুল হলে আবার আমরা সেই গোড়ার জায়গায় চলে যাব। ‘

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য এক-এক করে সমস্ত করোনা-বিধি তুলে দিচ্ছে। ফেব্রুয়ারি-মার্চ মাসের মধ্যে মাস্ক পরার নিয়মও উঠে যাচ্ছে। যুক্তরাজ্যও জানিয়েছে, দু’সপ্তাহের মধ্যে পুরনো স্বাভাবিক জীবনে ফিরবে তারাও। এ ধরনের পদক্ষেপে মোটেই খুশি নয় ডব্লিউএইচও। কারণ যুক্তরাষ্ট্রে এখনো দৈনিক সংক্রমণ মাত্রাছাড়া। দু’হাজারের বেশি দৈনিক মৃত্যু হচ্ছে এখনো। বিশেষজ্ঞরা বারবার বলে আসছেন, যত বেশি সংক্রমণ ঘটবে, তত বেশি নতুন ধরন তৈরি হওয়ার আশঙ্কা। এর মধ্যেই করোনা-বিধি তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

টিকার বৈষম্য নিয়ে উদ্বেগ রয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্র যখন চতুর্থ ডোজ় দেওয়ার কথা ভাবতে শুরু করেছে, আফ্রিকা তখনও টিকার প্রশ্নে অন্ধকারে। সৌম্য জানিয়েছেন, ৮৫ শতাংশ আফ্রিকান এখননো প্রথম ডোজই পাননি। একে টিকাহীন, তার ওপরে করোনা পরীক্ষাও তেমন হচ্ছে না এই মহাদেশে। এই অবস্থায় নতুন ধরন তৈরির আশঙ্কা প্রবল।

সৌম্য এ-ও বলেছেন, ধীরে ধীরে এ ভাইরাসের সঙ্গে বাঁচতেই শিখতে হবে মানুষকে। তবে তার আগে সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্য-শিক্ষা ও বিজ্ঞান-শিক্ষা, এই দুই বিষয়েই সচেতন হতে হবে।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন