English

24 C
Dhaka
সোমবার, মার্চ ৪, ২০২৪
- Advertisement -

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ সাইকোঅ্যাকটিভ পদার্থের উপর কর্মশালা

- Advertisements -

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর দেশে প্রথমবারের মতো Bangladesh National Early Warning Systems (BNEWS) on New psychoactive substances প্রণয়নের লক্ষ্যে এক কর্মশালার আয়োজন করেছে। কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী, সচিব, সুরক্ষা সেবা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জনাব মো: আবদুল ওয়াহাব ভূঞা এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন জনাব মোঃ আজিজুল ইসলাম, অতিরিক্ত মহাপরিচালক, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মোঃ সাইফুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব (মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ  অনুবিভাগ), জনাব মোঃ খায়রুল কবীর মেনন, অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন ও অর্থ অনুবিভাগ), সুরক্ষা সেবা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জনাব ড. মো: শোয়েব, অধ্যাপক, রসায়ন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং জনাব ড. মো. আরিফুল ইসলাম, চেয়ারম্যান ও অধ্যাপক, কৃষি রসায়ন বিভাগ, শেরে- বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

Advertisements

কর্মশালার প্রধান অতিথি জনাব আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী, সচিব, সুরক্ষা সেবা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাঁর বক্তব্যে বলেন, Early Warning Systems বাস্তবায়নের মাধ্যমে New psychoactive substances সম্পর্কে আগাম বার্তা পাওয়া যাবে।দেশের সকল সংস্থার ড্রাগ টেস্টিং ল্যাব এবং টক্সিকলজি ল্যাবসমূহের মধ্যে আন্ত:সমন্বয় করে কাজ করলে নতুন নতুন ড্রাগস সনাক্তকরণ এবং এ বিষয়ে জনসাধারণের মাঝে সচেতনতা সৃস্টি করা সহজ হবে। তিনি মাদক নিয়ন্ত্রণের সাথে সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানসমূহকে একযোগে কাজ করার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন UNODC এর  Drug Control &Prevention Officer. -Dr. Tun Nay Soe. তিনি  Early Warning Systems  সম্পর্কে বৈশ্বিক প্রেক্ষাপট এবং New psychoactive substances (NPS) কিভাবে Early Warning Systems এর আওতায় আনা যায় সে সর্ম্পকে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন ও উহা বাস্তবায়নের কৌশল সর্ম্পকে আলোকপাত করেন।

Advertisements

সভাপতি জনাব মো: আবদুল ওয়াহাব ভূঞা, মহাপরিচালক, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর তাঁর বক্তব্যে বলেন, Bangladesh National Early Warning Systems (BNEWS) on New Psychoactive Substances সম্পর্কে ধারণা প্রদানের জন্য আজকের এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, Early Warning Systems কার্যকর করতে হলে দ্রুত NPS Detection করতে হবে এবং NPS দ্রুত Detection এর জন্য ল্যাবগুলোকে আধুনিকায়ন এবং পাশাপাশি ল্যাবসমূহের জনবলের দক্ষতা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। এছাড়া কর্মশালায় অংশগ্রহণকৃত সংশ্লিষ্ট সকল সংস্হা ও প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রতিটিতে এ বিষয়ে ফোকাল পয়েন্ট নির্ধারণ করে আন্ত: সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করা হবে, যাতে দেশে সবার মাঝে নতুন নতুন সাইকোট্রপিক ড্রাগস্ সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি হয়।

দিনব্যাপী কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীবৃন্দ Bangladesh National Early Warning Systems (BNEWS) on New psychoactive substances বিষয়ে  আইন, বিধিবিধান ও জনসচেতনতা প্রভূতি বিষয়ে বিশদ আলোচনা করেন। কর্মশালায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ ছাড়াও বর্ডার গার্ড  বাংলাদেশ, বাংলাদেশ  কোস্ট গার্ড, সিআইডি, বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ  কর্পোরেশন, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ, বিসিএসআইআর, বিএসটিআই, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর,  সুরক্ষা সেবা বিভাগের প্রতিনিধি এবং এর সাথে সংশ্লিষ্ট ল্যাব প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন