English

27 C
Dhaka
শুক্রবার, জানুয়ারি ২৭, ২০২৩
- Advertisement -

জাতীয় নেতাদের স্মৃতি সংরক্ষণে বিশেষ কর্তৃপক্ষ প্রয়োজন: ড. আখতারুজ্জামান

- Advertisements -

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান বলেছেন জাতীয় নেতাদের স্মৃতি সংরক্ষণে বিশেষ উদ্যেগ গ্রহণ করতে হবে। এর জন্য একটি কর্তৃপক্ষ প্রয়োজন।

উপ মহাদেশের প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ অবিভক্ত বাংলার প্রধানমন্ত্রী কৃষক শ্রমিক দরদী নেতা শেরে বাংলা আবুল কাশেম ফজলুল হকের ১৫০তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে ২৬ অক্টোবর ( বুধবার)সকালে শেরে বাংলার মাজারে বরিশাল বিভাগ সমিতির আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

Advertisements

অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন বাঙালি জাতির যে সব নেতারা জাতির জন্য বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন তাদের মাজার বা স্মৃতি সংরক্ষনের জন্য একটি কর্তৃপক্ষ দরকার। আর যদি সেই কর্তৃপক্ষ না থাকে আজকে শেরে বাংলার মাজারে এসে দেখতে পেলাম বিদ্যুতের সংযোগ নাই এটা খুবই দুঃখজনক। আজকে এই শেরে বাংলার মাজার থেকে আমি বলতে চাই সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতীয়তাবাদের অন্যতম প্রবক্তা বাঙালিদের শিক্ষার দুত শেরে বাংলা আবুল কাশেম ফজলুল হক, গণতন্ত্রের মানুষপুত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দ্দী, মজলুম জননেতা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী, বঙ্গতাজ তাজউদ্দিন আহমেদ, বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম, বাঙালি নারীদের জাগরনের মনিষী কবি বেগম সুফিয়া কামাল ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের কর্মকান্ড নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার জন্য একটি কর্তৃপক্ষ দরকার। আর সেই কর্তৃপক্ষ নাই বলেই আজকে মহান নেতা শেরে বাংলার মাজার অন্ধকার।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বরিশাল বিভাগ সমিতির সভাপতি ও ২০২২ স্বাধীনতা পুরস্কার প্রাপ্ত ইতিহাসবিদ সিরাজ উদ্দিন আহমেদ।

রাষ্ট্রীয়ভাবে শেরে বাংলার জন্ম ও মৃত্যুবার্ষিকী পালন করার দাবী জানিয়ে সংগঠনের সভাপতি সিরাজউদ্দীন আহমেদ সভাপতির বক্তব্যে বলেন, বরিশালে যে বাড়িতে তিনি তার স্কুল ও কৈশোর জীবন কাটিয়েছেন সেই বাড়ীটি পুনরুদ্ধার করে রাষ্ট্রীয় শেরে বাংলার নামে একাডেমী করা হউক। তিনি আরো বলেন- বঙ্গবন্ধুও তাঁর অসমাপ্ত আত্মজীবনীতে শেরে বাংলার অনেক কথা বলে গেছেন।

Advertisements

আমরা সেই আত্মজীবনীও যদি অনুসরণ করি তাহলে শেরে বাংলার মর্যাদার জন্য কোথাও যেতে হবে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শেরে বাংলার নামে একটি চেয়ার প্রতিষ্ঠা করারও দাবী জানান সিরাজউদ্দীন আহমেদ।

সভয় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাসস এর সাবেক ব্যাবস্থাপনা পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল ইসলাম ভূইয়া, কাজী আরেফ ফাউন্ডেশনের সভাপতি কাজী মাসুদ আহমেদ, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যক্ষ বদরুজ্জামান ভূইয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মিজানুল হক ভূইয়া, বরিশাল বিভাগ সমিতির সাধারণ সম্পাদক এম এ জলিল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ স ম মোস্তফা কামাল, জাতীয় তরুন সঙ্গের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ফজলুল হক, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ সভাপতি মানিক লাল ঘোষ, কেএসপি সভাপতি সিরাজুল হক, জনতা ফ্রন্টের চেয়ারম্যান আবু আহাদ দিপু মীর, মানবাধিকার নেতা মঞ্জুর হোসেন ঈশা, বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী এস এম আহসান উল্লাহ, বরিশাল বিভাগ সমিতির সদস্য মুকিম হক, প্রিন্সিপাল মোঃ আজিজুর রহমান মিন্টু, মোঃ সাখাওয়াত হোসেন প্রমুখ।

আলোচনা সভার পূর্বে শেরে বাংলার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বরিশাল বিভাগ সমিতি।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন