English

34 C
Dhaka
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৬, ২০২২
- Advertisement -

গুরুত্বপূর্ণ জলবায়ু পরিবর্তন বিল পাস করল অস্ট্রেলিয়া

- Advertisements -

অস্ট্রেলিয়া প্রথমবারের মতো একটি জলবায়ু লক্ষ্যমাত্রা আইন পাস করেছে। এতে ২০৩০ সালের মধ্যে কার্বন নিঃসরণ কমপক্ষে ৪৩% কমানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়া মাথাপিছু হিসাবে বিশ্বের বৃহত্তম গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণকারী দেশগুলোর মধ্যে একটি। নতুন লক্ষ্যমাত্রাটি একে অন্যান্য উন্নত দেশগুলোর সঙ্গে সংগতিপূর্ণ পর্যায়ে আনবে।

Advertisements

তবে সমালোচকরা বলছেন, সরকার লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের উপায় সম্পর্কে বিশদ পরিকল্পনা দেয়নি।

কেউ কেউ উচ্চতর নিঃসরণ হ্রাসের লক্ষ্যের পাশাপাশি দেশে নতুন জীবাশ্ম জ্বালানি (তেল, গ্যাস ও কয়লা) প্রকল্প নিষিদ্ধ করার দাবি করছেন।

প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজি নতুন আইনকে অস্ট্রেলিয়ার জলবায়ু নীতির এক দশকের নিষ্ক্রিয়তার অবসান হিসেবে প্রশংসা করেছেন।

লেবারদলীয় সরকারের জলবায়ু বিলটি স্বতন্ত্র প্রার্থী ডেভিড পককের ছোটখাটো কিছু  সংশোধনী গ্রহণ করার পর ৩৭-৩০ ভোটে সিনেটে পাস হয়।

Advertisements

অস্ট্রেলিয়ার এর আগের সরকার তার স্বল্পমেয়াদি নিঃসরণ হ্রাস লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে আন্তর্জাতিক মিত্রদের ক্ষুব্ধ করেছিল। জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কিত আন্তঃসরকার প্যানেল (আইপিসিসি) বলেছে, পৃথিবীর উষ্ণতা বৃদ্ধি দেড় ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে সীমাবদ্ধ করার জন্য (তা আদৌ সম্ভব হলে) যা প্রয়োজন অস্ট্রেলিয়ার আগের অঙ্গীকার ছিল তার প্রায় অর্ধেক।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে বৃহত্তর পদক্ষেপের জন্য অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্টের সদস্যদের মধ্যে জোরালো সমর্থন রয়েছে। অনেক স্বতন্ত্র সদস্য জলবায়ু পরিবর্তনের ইস্যুতে প্রচারণা চালিয়েছেন। তারা ২০৩০ সালের মধ্যে নিঃসরণ হ্রাসের লক্ষ্যমাত্রা কমপক্ষে ৫০% চেয়েছিলেন।

অস্ট্রেলিয়া সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক বন্যাসহ বিভিন্ন ধরনের চরম প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার হয়েছে, যাকে জলবায়ু পরিবর্তনের ফল হিসেবে মনে করা হচ্ছে। এ কারণে জনসাধারণসহ সব মহলে জলবায়ু পরিবর্তন রোধে অধিকতর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য চাপ বাড়ছে।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন