English

31 C
Dhaka
বুধবার, জুন ১২, ২০২৪
- Advertisement -

সন্তান ছেলে না মেয়ে, জানতে স্ত্রীর পেট কেটে ফেলেন স্বামী!

- Advertisements -

গর্ভবতী স্ত্রীর পেটে থাকা সন্তান ছেলে নাকি মেয়ে, এটি জানতে তাঁর পেট কাচি দিয়ে কেটে ফেলেন স্বামী। পরে ওই নারীকে বাঁচানো গেলেও পেটের সন্তানকে বাঁচানো যায়নি। ভারতের উত্তর প্রদেশের বাহাদুন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

Advertisements

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, পরে জানা যায় ওই সন্তান ছিল ছেলে। এ ঘটনায় এক মামলায় স্বামী পান্না লালকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ২০২০ সালের নভেম্বরের এই ঘটনায় গুরুতর আহত হন তাঁর স্ত্রী অনিতা।

২২ বছর ধরে সংসার করেন পান্না–অনিতা দম্পতি। তাদের পাঁচ সন্তান রয়েছে, সবাই মেয়ে। ছেলে সন্তানের জন্য প্রায়ই স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করতেন পান্না। অনিতার পরিবার তাঁকে অনেক বোঝালেও তিনি অনিতাকে ডিভোর্স দেওয়ার হুমকি দেন। ডিভোর্স দিয়ে অন্য আরেকটা বিয়ে করে ছেলে সন্তান চান বলে জানান তিনি।

ঘটনার দিন গর্ভের সন্তান নিয়ে ঝগড়া করেন পান্না ও অনিতা। এ সময় পান্না হুমকি দেন, তিনি পেট কেটে দেখবেন সন্তান ছেলে নাকি মেয়ে। পরে মেরে ফেলারও হুমকি দেন তিনি।

Advertisements

পরে ভয়ে ঘর থেকে বের হয়ে যাওয়ার সময় অনিতাকে ধরে কাচি দিয়ে পেট কেটে ফেলেন। অনিতার পেটে তখন আট মাসের সন্তান। এতে পেটের নাড়ি বেরিয়ে গিয়েছিল তাঁর।

পরে আশপাশের লোকজন এতে দ্রুত হাসপাতালে নিলে বেঁচে যান অনিতা। তবে, সন্তানকে বাঁচানো যায়নি। জানা যায়, সন্তানটি ছিল ছেলে। ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান পান্না।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন