English

31 C
Dhaka
মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
- Advertisement -

ভাষা দিবস পদক প্রদান গুণীজন সম্মাননা ও লেখক সম্মেলন

- Advertisements -

বাংলা ভাষায় সুস্থধারার সাহিত্যের অভাব, তা পূরণে লেখক সাহিত্যিকদের এগিয়ে আসতে হবে।

সাহিত্য সংস্কৃতি কেন্দ্রের উদ্যোগে আয়োজিত ভাষা দিবস পদক প্রদান গুণীজন সম্মাননা ও লেখক সম্মেলন ২০২৪ এ দেশের বিশিষ্ট কবি সাহিত্যিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিগণ বলেন, বাংলা ভাষায় সুস্থ ধারার সাহিত্যের অভাব। এই অভাব পূরণে মুসলিম মূল্যবোধে বিশ্বাসী কবি সাহিত্যিক ও লেখকদের এগিয়ে আসতে হবে। তা না হলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ইসলামী ভাবধারায় রাখা কঠিন হবে। এবং জাতির ভবিষ্যত সংকটে পড়বে। একটি উন্নত দেশ ও জাতি গঠনে ইসলামী ভাবধারার সাহিত্যের বিকল্প নেই।

Advertisements

সোমবার বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের আব্দুস সালাম মিলনায়তন সম্মেলন অনুষ্ঠানে বক্তারা এইসব কথা বলেন। সাহিত্য সংস্কৃতি কেন্দ্রের সভাপতি যাকিউল হক জাকীর সভাপতিত্বে ও এম এ তাওহিদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, প্রধান অতিথি হিসেবে বিচারপতি ও সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ আব্দুর রউফ, কবি আসাদ বিন হাফিজ, কবি মোশাররফ হোসেন খান, শরীফ বায়জীদ মাহমুদ, অধ্যাপক আবু তাহের বেলাল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শহিদুল ইসলাম, ড. মাহফুজুর রহমান আখন্দ, আবেদুর রহমান, ভাষা আন্দোলনের স্থপতি সংগঠন তমুদ্দুন মজলিসের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য এমদাদুল হক চৌধুরী, কবি ও গবেষক ড. ফজলুল হক তুহিন, সাহিত্য সংস্কৃতি কেন্দ্রের সেক্রটারি মাহবুব মুকুল, আব্দুর রহমান, নাসির আহমেদ ফয়সাল, কবি রবিউল মাশরাফি, শিশু সংগঠক হাসান মোর্তজা, কবি আফসার নিজাম প্রমুখ। এবার সাহিত্য সংস্কৃতি কেন্দ্রের গুণীজন সম্মাননা পান, ১. আবদুল মান্নান তালিব (মরণোত্তর) (প্রখ্যাত লেখক, গবেষক কবি এবং সাহিত্যিক)। ২. আবুল আসাদ (প্রখ্যাত সাংবাদিক, প্রাবন্ধিক, কলামিস্ট এবং সাহিত্যিক) আর ২০২৪-এ ভাষা দিবস পদক পান, ১. শিশু সংগঠক হিসাবে হাসান মোর্তজা। ২. সাহিত্যে আতিক হেলাল। ৩. আবৃত্তিতে কামাল মিনা ৪. নাটকে এ বি এম নোমান আজাদ। ৫. সঙ্গীতে আবু রায়হান।

অনুষ্ঠানে সাহিত্য সংস্কৃতি কেন্দ্রের প্রকাশনা সীরাত গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।
আবুল আসাদের পক্ষে পদক গ্রহণ করেন ওনার ছেলে শাকিল আব্দুল্লাহ। আব্দুল মান্নান তালিব এর ছেলে আব্দুল্লাহ হিল মাসুদ বক্তব্য রাখেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে বিচারপতি ও সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ আব্দুর রউফ বলেন, পশ্চিম ও পূর্ব পাকিস্তানের ভাষা এক ছিল না। ১৯৪৭ সালে আমরা ব্রিটিশদের অত্যাচার থেকে আজাদী লাভ করি। তারপর আসলো ভাষার প্রশ্ন। বাংলা ভাষাকে সমৃদ্ধ করতে হবে। আগামী প্রজন্মের কাছে আহ্বান বাংলা ভাষাকে উন্নত করতে কাজ করবেন। মুসলিম মূল্যবোধের ভাবধারার লেখক সাহিত্যিকদের দায়িত্ব ইসলামী ভাবধারার শব্দ প্রয়োগে নতুন নতুন সাহিত্য রচনা করা। পৃথিবীতে অনেক জীবন্ত ভাষা রয়েছে। এরমধ্যে বাংলা ভাষা অনেক উন্নত। এবং ভাষার উন্নয়নে কাজ করতে হবে। ভাষা কে সমৃদ্ধ করতে কাজ করতে হবে।

Advertisements

কবি আসাদ বিন হাফিজ বলেন, মহান আল্লাহ কাজে দুনিয়া ও পরকালের কল্যান চাইতে হবে। সব ধরনের পাপ কাজ ও খারাপ কাজ থেকে বেঁচে থাকতে হবে। রমজানের আগে খারাপ কাজ পরিহার করতে হবে।

কবি মোশাররফ হোসেন খান বলেন, গত সাত বছর ধরে সাহিত্য সংস্কৃতি কেন্দ্র এই মহৎ কাজ করে আসছে। এই কাজ ইনশাআল্লাহ অব্যাহত থাকবে। আমাদের হতাশার কিছু নেই, আমাদের কবি সাহিত্যিক ও গবেষক এবং শিল্পী সংখ্যা বেড়েছে। আমার সাহিত্য সংস্কৃতি কেন্দ্রের পদক অন্য যে কোনো পদকের চেয়ে বড়। এই প্রতিষ্ঠান আরও অনেক বড় পদক দিব ইনশাআল্লাহ। আর এই পদক পাওয়ার জন্য সবাই তাকিয়ে থাকবে ইনশাআল্লাহ।

সাহিত্য সংস্কৃতি কেন্দ্রের সভাপতি যাকিউল হক জাকীর সভাপতির বক্তব্যে বলেন, আজকে অনুষ্ঠানে আসার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আপনাদের সমর্থন ও ভালোবাসা পেলে আমরা আরও অনেক কাজ করবো ইনশাআল্লাহ। আমরা প্রতি বছর একটি সম্মৃদ্ধ সীরাত স্মারক বের করি, ইনশাআল্লাহ এই প্রকাশনা অব্যাহত থাকবে। স্বাধীনতার জন্য সুস্থধারা সংস্কৃতি চর্চা জরুরী।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন