English

29 C
Dhaka
বুধবার, জুলাই ৬, ২০২২
- Advertisement -

স্বাধীনতাপদক প্রাপ্ত বিশিষ্ট সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে ডিইউজের শোক

- Advertisements -

ফিরোজ আলম মিলন: বৃহস্পতিবার লন্ডনে স্থানীয় সময় ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আবদুল গাফফার চৌধুরী। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

Advertisements

১৯৫০ সালে আবদুল গাফফার চৌধুরী পরিপূর্ণভাবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৫১ সালে ‘দৈনিক সংবাদ’ প্রকাশ হলে আবদুল গাফফার চৌধুরী সেখানে অনুবাদকের কাজ নেন। এরপর তিনি বহু পত্রিকার সঙ্গে যুক্ত হন। আবদুল গাফফার চৌধুরী বরিশাল জেলার মেহেন্দিগঞ্জের উলানিয়া গ্রামের চৌধুরী বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা হাজি ওয়াহিদ রেজা চৌধুরী ও মা মোসাম্মৎ জহুরা খাতুন। তিন ভাই, পাঁচ বোনের মধ্যে বড় ভাই হোসেন রেজা চৌধুরী ও ছোট ভাই আলী রেজা চৌধুরী। বোনেরা হলেন- মানিক বিবি, লাইলী খাতুন, সালেহা খাতুন, ফজিলা বেগম ও মাসুমা বেগম।

বিশিষ্ট সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী ও স্বাধীনতাপদক প্রাপ্ত লেখক সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের-(ডিইউজে) সভাপতি সোহেল হায়দার চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন।

Advertisements

বৃহস্পতিবার এক শোকবার্তায় নেতৃবৃন্দ বলেন, আবদুল গাফফার চৌধুরী ১৯৫১ সালে দৈনিক সংবাদ পত্রিকায় সাংবাদিকতা শুরু করেন। পরবর্তী ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে আত্মাহুতি দানকারী শহীদদের স্মরণে ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ গানটি রচনা করেন। তিনি আমৃত্যু লেখালেখির সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

ডিইউজে নেতৃবৃন্দ বলেন, আবদুল গাফফার চৌধুরী ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন আত্মাহুতি দানকারী শহীদদের স্মরণে গানটি রচনা করে ইতিহাসের অংশ হয়ে আছেন। আপাদমস্তক উদার গণতান্ত্রিক ও অসাম্প্রদায়িক চেতনা সম্মৃদ্ধ একজন বড় মাপের মানুষ ছিলেন তিনি।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন