English

27 C
Dhaka
শনিবার, মে ১৮, ২০২৪
- Advertisement -

কোভিড-১৯: মৃত্যুর মিছিলে যেসব দেশ

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

মহামারী করোনাভাইরাসের প্রাণঘাতি থাবায় তছনছ হয়ে গেছে পুরো বিশ্ব।প্রাণান্ত চেষ্টা করেও পুরোপুরি বাগে আনা যায়নি এর আগ্রাসন।বিশ্বের অনেক দেশ এই মহামারীর ভ্যাকসিন আবিষ্কারের উদ্যোগ নিলেও বস্তুত এখনো পর্যন্ত তা ট্রায়াল পর্যায়ে আছে।এদিকে বিশ্বের অর্থনীতি এক নাজুক অবস্থার মধ্যে নিপতিত হয়েছে।বেকার হয়েছে কোটি কোটি মানুষ।দারিদ্র্যসীমার নীচে নেমে গেছে প্রায় এক তৃতীয়াংশ জনগণ।
মহামারী করোনার থাবায় বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চল আক্রান্ত হয়েছে।মৃত্যুর মিছিল বেড়েই চলেছে। বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বিশ্বে এখন পর্যন্ত (১৫ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা) করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৯৪ লাখ ৪৫ হাজার ৬৮২ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ লাখ ৫৭ হাজার ১৭৯ জন। নতুন করে প্রাণ গেছে ৪ হাজার ৪৮৯ জনের। এ নিয়ে করোনারায় মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ৯ লাখ ৩২ হাজার ৭৪৪ জন মানুষ।
আর ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ কোটি ১২ লাখ ৭৯ হাজার ৮১৮ জন।গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ্য হয়েছেন ২ লাখ ৪৮ হাজার ৩৩৯ জন।বিশ্বে বর্তমানে মধ্যম মানের আক্রান্ত ৭১ লাখ ৭২ হাজার ৩২২ জন বা ৯৯% এবং গুরুতর অসুস্থ্য ৬০ হাজার ৭৯৮ জন বা ১%।
করোনাভাইরাসের আক্রমণে মৃত্যুর মিছিলে বিশ্বের ২১৩ টি দেশ ও অঞ্চল যোগ হয়েছে।এরমধ্যে ভয়াবহ অবস্থায় প্রথম ২০ টি দেশের তালিকায় আছে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল, ভারত,মেক্সিকো, যুক্তরাজ্য,ইতালী,ফ্রান্স, পেরু, স্পেন, ইরান, কলোম্বিয়া, রাশিয়া, সাউথ আফ্রিকা, চিলি, আর্জেন্টিনা, ইকুয়েডর, জার্মানি, কানাডা, বেলজিয়াম, ইন্দোনেশিয়া প্রভৃতি।

একনজরে যদি আমরা করোনায় মৃত্যুর দিক দিয়ে প্রথম সারির দেশগুলি দেখতে চাই তাহলে প্রথমেই উঠে আসবে যুক্তরাষ্ট্রের নাম।
যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৯৯ হাজার জনের।
দ্বিতীয় অবস্থানে ব্রাজিল। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ১১৭ জন।
মৃতের সংখ্যায় তৃতীয় অবস্থানে ভারত, দেশটিতে মারা গেছেন ৮০ হাজার ৮০৮ জন।
চতুর্থ অবস্থানে মেক্সিকো। এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু ৭০ হাজার ৮২১ জন।
পঞ্চম অবস্থান যুক্তরাজ্য। মোট মৃত্যু ৪১ হাজার ৬৩৭ জনের।
পরের অবস্থানে ইতালী।দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৩৫ হাজার ৬২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।
করোনায় মৃত্যুতে এর পরেই আছে ইউরোপের দেশ ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩০ হাজার ৯৫০ জন।
দক্ষিণ আমেরিকার আর এক দেশ পেরু আছে ৮ম অবস্থানে। পেরুতে মোট মৃত্যু ৩০ হাজার ৮১২ জন।
নবম অবস্থানে স্পেন।স্পেনে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ২৯ হাজার ৮৪৮ জনের।
এশিয়ার আরেক দেশ ইরান আছে দশম স্থানে। ইরানে মোট মৃত্যু ২৩ হাজার ৩১৩ জনের।
কলোম্বিয়ার অবস্থান ১১তম।মোট মৃত্যু ২৩ হাজার ১২৩ জনের।
ইউরোপের দেশ রাশিয়া বার তম অবস্থানে রয়েছে।রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১৮ হাজার ৬৩৫ জন।
সাউথ আফ্রিকা আছে ত্রয়োদশ তম স্থানে।এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১৫ হাজার ৪৯৯ জন।
চিলির অবস্থান চতুর্দশ তম।এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১২ হাজার ১৩ জন।
পঞ্চদশ্তম আর্জেন্টিনা।এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১১ হাজার ৬৬৭ জন।
ষোড়শ তম ইকুয়েডর।এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১০ হাজার ৯২২ জন।
সপ্তদশ্তম বেলজিয়াম।এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৯ হাজার ৯২৫ জন।
আঠারোতম স্থানে জার্মানি।এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৯ হাজার ৪৩৬ জন।
উনিশ তম কানাডা।এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৯ হাজার ১৭৯ জন।
বিশতম অবস্থানে ইন্দোনেশিয়া। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৮ হাজার ৮৪১ জন।
সারকথা হলো- মহামারী এই করোনা ভাইরাস শিগগিরই যাচ্ছে না। আরও বহু মানুষ এতে আক্রান্ত হবেন, মারাও যাবেন অনেকে। তবে মনে রাখতে হবে, আপনার হয়তো করোনা নিয়ে আগ্রহ কমে গেছে, কিন্তু আপনার ওপর করোনার আগ্রহ একদমই কমেনি।
লেখকঃ সাংবাদিক, সমাজকর্মী।
০১৭১৬৪৯৩০৮৯

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন