English

33 C
Dhaka
শুক্রবার, মে ২০, ২০২২
- Advertisement -

‘স্বাধীনতা আমাদের রক্তে কেনা অর্জন’

- Advertisements -

স্বাধীনতা আমাদের রক্তে কেনা অর্জন। আমাদের এই অর্জন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতো একজন মহামানবের জন্ম এই মাটিতে হয়েছিলো বলে সম্ভব হয়েছিলো। সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে আমাদের এই অর্জনকে অর্থবহ করতে হবে। এই লক্ষ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের মাধ্যমে জ্ঞানভিত্তিক ডিজিটাল সাম্য সমাজ প্রতিষ্ঠায় ডিজিটাল মহাসড়ক নির্মাণে তিনি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের কর্মকান্ডকে আরো গতিশীল করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

Advertisements

মন্ত্রী আজ ঢাকায় মুজিবজন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক নেতৃত্ব: স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও দেশের উন্নয়ন বিষয়ক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো: আফজাল হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিটিআরসি‘র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার, বিএসসিএল চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ. ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো: সিরাজ উদ্দিন, বিটিসি্এল এর ব্যাবস্থাপনা পরিচালক ড. রফিকুল মতিন, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অফিস সহায়ক তাহমিদা সুলতানা প্রমূখ বক্তৃতা করেন। মন্ত্রণালয় ও এর অধীন সংস্থা সমূহের কর্মকর্তা কর্মচারিগণ অনুষ্ঠানে সংযুক্ত ছিলেন।

মন্ত্রী ১৯৭১ সালের আজকের এই দিনে ঢাকা শহরে পাকিস্তানি বাহিনীর নিরস্ত্র বাঙালির ওপর বর্বোরোচিত হামলায় ঢাকা শহরকে লাশের শহরে পরিণত হয়েছিলো উল্লেখ করে বলেন, বঙ্গবন্ধুকে গ্রেফতার এবং বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণার জন্য খুবই স্মৃতি জাগানিয়া সময় ছিলো এটি। বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমার প্রজন্মের জন্য স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর এবং জাতির পিতার জন্মশতবর্ষ পালন করা খুবই সৌভাগ্যের। মা বাবা যারা যুদ্ধে পাঠিয়েছিলেন তারাও ভাবেননি আমরা ফেরৎ আসব। আমরা পঞ্চাশ বছরের রূপান্তর দেখেছি। তিনি বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ববকে সমকালীন বিশ্বের বিস্ময় উল্লেখ করে বলেন, হুচিমিন, মাওসেতুং, চেগুয়েভারা, লেলিন কিংবা মাও সে তুং তাদের সাথে বঙ্গবন্ধুকে তুলনা করলে বলা যাবে বঙ্গবন্ধু ছিলেন অনন্য।

Advertisements

পঞ্চাশ বছরের বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর সাড়ে তিন বছর এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১৭ বছরের বাংলাদেশের অগ্রগতির তুলনামুলক পার্থক্য তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, পচাত্তর পরবর্তী দীর্ঘ ২১ বছর বাংলাদেশ ছিলো অপশক্তির হাতে। বাংলাদেশ রাষ্ট্রটিকে পাকিস্তানি ভাবধারায় ফিরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা অব্যাহত ছিলো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে আজকের বাংলাদেশ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আমাদের লক্ষ্য সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা আর এর অন্যতম হাতিয়ার হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি বাস্তবায়ন ত্বরান্বিত করা। তিনি বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ডিজিটাল সংযোগের ওপর নির্ভরশীল। এই জন্য ডিজিটাল মহাসড়ক নির্মাণে চলমান কার্যক্রম দ্রুততার সাথে সম্পন্ন করতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সংশ্লিষ্টদের আরও তৎপর হওয়ার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বাংলাদেশের অগ্রগতির বিভন্ন তথ্য তুলে ধরেন। তাদের বক্তৃতায় বঙ্গবন্ধুর অবদান ও পঞ্চাশ বছরের বাংলাদেশের অগ্রগতির চিত্র উঠে আসে। তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশের সফলতাকে এগিয়ে নিতে সকলকে সচেষ্ট হতে হবে ।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন