English

28 C
Dhaka
শনিবার, জুলাই ২, ২০২২
- Advertisement -

২৮ মার্চ হরতালের ডাক দিলেন ডা. জাফরুল্লাহ

- Advertisements -

আগামী ২৮ মার্চ অর্ধদিবস হরতালের ডাক দিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রর ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। দ্রব্যমূল্যসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে এই হরতাল কর্মসূচির আহ্বান করেন তিনি।

আজ শুক্রবার (১১ মার্চ) বিকেল চারটায় ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের বীরউত্তম মেজর হায়দার মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

দ্রব্যমূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতায় আনা, ভর্তুকি মূল্যে দরিদ্র ২ কোটি পরিবারকে নিয়মিত রেশন দেওয়া, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির ব্যবসায়ীক সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এই তিন দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

Advertisements

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, সরকারকে দৃষ্টি আকর্ষণ করতে জনগণের কথা তাদের কানে প্রবেশের জন্য আগামী ২৮ মার্চ সকল রাজনৈতিক দলের, সকল মানুষের উচিত শান্তিপূর্ণভাবে হরতাল পালান করা।

শ্রমজীবী মানুষকে আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আপনার ২৮ তারিখ বাসার বাইরে বের হবেন না। বের হলেও হরতালে যোগ দেওয়ার জন্য বের হবেন। সবাই মিলে দলমত নির্বিশেষে যে যেভাবে পারেন ২৮ মার্চ এই হারতালের পালন করেন।

গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা বলেন, দেশ কঠিন সময় অতিক্রম করছে। এটা ১৯৭৪ সালের পূর্বাভাস। ১৯৭৪ সালে অনাহারে ৩ লাখ মানুষ মৃত্যুবরণ করেছিল। কয়েক মাস আগেও আমাদের দেশে রাষ্ট্রীয় উদ্বৃত্ত ছিল ৪৭ বিলিয়ন ডলার। এখন সেটা ৪৩ বিলিয়ন ডলারে চলে আসছে। এই চার বিলিয়ন কোথায় গেল? এই চার বিলিয়ন ডলার দিয়ে তো কয়েক বছর সারা দেশে অন্তত দুই-তিন কোটি পরিবারকে রেশন দেওয়া যেত।

রণাঙ্গনের এই বীর মুক্তিযোদ্ধা বলেন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে আমাদের আধা বেলারর জন্য রাস্তায় নামা দরকার। আপনাদের কষ্ট হবে তারপরও অনুরোধ করছি আধা বেলা কষ্ট করেন। সরকারের নিরাপত্তা বাহিনীকে বলল, অতীতের মতো হরতালের সময় নিজেরা গাড়ি ভেঙে আমাদের ওপর চাপাবেন না। এই হারতালে প্রধানমন্ত্রীকে সামিল হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

Advertisements

হতালের সমর্থন জানিয়েন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, সরকারের সমস্ত উন্নয়ন ধ্বংসে পড়েছে যখন জনগণ টিসিবির গাড়ির পেছনে হুমড়ি খেয়ে পড়ে।

গণ অধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নূর বলেন, আমরা বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যেই আছি। ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী স্যারের অতীতের সকল যৌক্তিক কর্মসূচিতে আমরা তার পাশে ছিলাম, এখনো আছি। তবে হরতাল যেহেতু একটি বড় রাজনৈতিক কর্মসূচি সেহেতু আমরা দলের মিটিংয়ে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত জানাব।

ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু বলেন, দ্রব্যমূল্যসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে আগামী ১৮ মার্চ বুখা মিছিল করব।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, গণস্বাস্থ্যের মিডিয়া কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু প্রমুখ।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন