English

28 C
Dhaka
সোমবার, আগস্ট ১৫, ২০২২
- Advertisement -

ইন্টারনেটে সার্চে পদ্মা সেতু নিয়ে মানুষের যত আগ্রহ

- Advertisements -

অনলাইনে পদ্মা সেতু নিয়ে কখন, কী খুঁজেছেন মানুষ? কোন দেশ বা বাংলাদেশের কোন জায়গা থেকে সবচেয়ে বেশি তথ্য সন্ধান করেছেন তারা? কত কনটেন্ট তৈরি হয়েছে এই সেতুকে ঘিরে? গুগল ট্রেন্ডস থেকে বের করা হয়েছে এসব প্রশ্নের উত্তর।

সময়ের রেখাচিত্র

পদ্মা সেতু নির্মাণ শুরু হয়েছিল আট বছর আগে। এই সময়ে ইন্টারনেটে মানুষের আগ্রহের চিত্র দেখা যাচ্ছে ‘গুগল ট্রেন্ডসের’ গ্রাফে। সেতুটি নিয়ে মানুষ সবচেয়ে বেশি আগ্রহী হয়ে ওঠেন চলতি জুনে উদ্বোধনকে ঘিরে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে ২০২০ সালের ডিসেম্বরে। সেই সময় সেতুটিতে সর্বশেষ স্প্যান বসে। ২৫ জুন উদ্বোধনের দিনই এই সেতুকে ঘিরে সবচেয়ে বেশি আকর্ষণ ছিল। পরের দিনই তা অর্ধেকে নেমে আসে।

যেসব দেশ থেকে

স্বাভাবিকভাবেই পদ্মা সেতু নিয়ে আগ্রহ সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশেই। আট বছরের চিত্রে ইন্টারনেট সার্চে এরপরের অবস্থানে আছে মালদ্বীপ, কাতার, ওমান, বাহরাইন। তবে গত এক মাসে বাংলাদেশের পরে কাতার, পাকিস্তান, ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে পদ্মা সেতু নিয়ে সবচেয়ে বেশি ওয়েব সার্চ করা হয়েছে।

Advertisements

আগ্রহের বিষয়বস্তু

গত আট বছরে গুগলে ব্যবহারকারীরা সবচেয়ে বেশি জানতে চেয়েছেন পদ্মা সেতুর স্প্যান নিয়ে। দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ‘পদ্মা ব্রিজ প্যারাগ্রাফ’, শিক্ষার্থীদের কাছে যা গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ‘পদ্মা ব্রিজ পিলার’, ‘টোলের হার’ নিয়েও জানতে চেয়েছেন ব্যবহারকারীরা। অন্যদিকে উদ্বোধন, সরাসরি সম্প্রচারের ভিডিও নিয়ে বেশি তথ্য খুঁজেছেন তারা গত একমাসে। বাংলায় পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য, পিলার, খরচ, স্ট্যাটাস, উক্তি খুঁজেছেন মানুষ।

খবর সন্ধান

দেশ ভিত্তিতে আট বছরে পদ্মা সেতু নিয়ে গুগলে সবচেয়ে বেশি খবর খোঁজ করা হয়েছে বাংলাদেশ থেকে। এরপর বেশি সন্ধান করা হয়েছে নেপাল থেকে। তৃতীয় অবস্থানে বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি প্রবাসী কর্মী অবস্থান করা দেশ সৌদি আরব। চতুর্থ ও পঞ্চম অবস্থানে আছে যুক্তরাজ্য ও ক্যানাডা। গত একমাসে বাংলাদেশের বাইরে পদ্মা সেতু সংক্রান্ত সবচেয়ে বেশি খবর খোঁজা হয়েছে মালয়েশিয়া, কানাডা, যুক্তরাজ্য ও ভারত থেকে।

ভারতের ত্রিপুরা শীর্ষে

গত একমাসে ভারতের মধ্যে বাংলাদেশের প্রতিবেশী রাজ্যগুলো থেকে এই সেতু নিয়ে সবচেয়ে বেশি গুগল সার্চ হয়েছে। র্শীষে আছে বাংলাদেশের পূর্বে অবস্থিত ত্রিপুরা। এরপর রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ, মেঘালয়, আসাম ও অরুণাচল প্রদেশ। আগ্রহের শীর্ষে ছিল পদ্মা সেতুর টোল হার।

Advertisements

ইউটিউবে মাওয়া শীর্ষে

গুগল ট্রেন্ডস অনুযায়ী, পদ্মা সেতু নিয়ে গত আট বছরে ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি ভিডিও খোঁজা হয়েছে মুন্সিগঞ্জের মাওয়া থেকে, যে স্থানটি পদ্মা সেতুকে দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলোর সঙ্গে যুক্ত করেছে। এরপর সবচেয়ে বেশি ভিডিও অনুসন্ধান হয়েছে বরিশালের আটিপাড়া থেকে। তারপরে রয়েছে বাগেরহাট, মাগুরা, রাজশাহী। গত একমাসের চিত্রে শীর্ষে ছিল ঝালকাঠি।

কোটি কনটেন্ট!

গুগলের ওয়েব সার্চে বাংলায় ‘পদ্মা সেতু’ লিখে অনুসন্ধান করলে মোট ৯১ লাখ কনটেন্ট পাওয়া যায়। সংবাদ ফলাফল পাওয়া যায় প্রায় ৩০ লাখ। এ ছাড়া ইংরেজিতে ‘Padma Bridge’ লিখে ওয়েব সার্চেও প্রায় ৮৬ লাখের ওপরে কনটেন্ট পাওয়া যায়। সংবাদ পাওয়া যায় প্রায় ২ লাখ ৭৭ হাজার।

সবচেয়ে বেশি সংবাদ!

বিশ্বের দীর্ঘতম সেতু চীনের ডানিয়াং-কুনসান গ্র্যান্ড ব্রিজ। গুগলের ওয়েবে ইংরেজিতে এই সেতুটির নাম দিয়ে সার্চে মোট ২ কোটি কনটেন্ট পাওয়া যায়। তবে এই সেতু নিয়ে সংবাদ কনটেন্ট পাওয়া যায় মাত্র ১২০০টি। ভারতের দীর্ঘতম সেতু ঢোলা সাদিয়া সেতু বা ভূপেন হাজারিকা সেতু-র ওয়েব সার্চে প্রায় ৯০ হাজার কনটেন্ট পাওয়া যায়, সংবাদ দেখা যায় প্রায় ২ হাজার। সেই হিসাবে পদ্মা সেতু নিয়ে সংবাদ হয়েছে কয়েকগুণ বেশি।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন