English

29 C
Dhaka
শনিবার, জুন ১৫, ২০২৪
- Advertisement -

সিলেটে ‘বোমাসদৃশ্য বস্তু’ শনাক্তের ঘটনায় সার্জেন্টকে সাময়িক বহিষ্কার

- Advertisements -
Advertisements
Advertisements

সিলেট নগরীর চৌহাট্টায় মোটরসাইকেলে ‘বোমাসদৃশ্য বস্তু’ শনাক্তের ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ এনে সিলেট মহানগর পুলিশের (ট্রাফিক) সার্জেন্ট চয়ন নাইডুকে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে। শনিবার (০৮) জুলাই রাতে মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সল মাহমুদ  নিরাপদ নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
গত ৬ আগস্ট ঘটনার দিনই চয়ন নাইডুকে বহিষ্কার করা হয় বলে জানান তিনি। তিনি জানান, তার মোটরসাইকেলে ‘গ্রাইন্ডিং মেশিন’ পাওয়া গেছে তার দায়িত্বরত এলাকা ছেড়ে অন্য এলাকায় অবস্থান করছিলেন। এছাড়া তার মোটরসাইকেলে এভাবে একটি বোমাসদৃশ বস্তু রেখে দেওয়া হলেও বিষয়টি তিনি বুঝতে পারলেন না, এসব কারণেই তাকে বহিষ্কার করা হয়।
তিনি আরও বলেন, মোটরসাইকেলে ‘গ্রাইন্ডিং মেশিন’ রাখার ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে। এ ঘটনায় তার কোনো দায়িত্ব অবহেলা তদন্তে উঠে আসলে তিনি বিভাগীয় শাস্তি ভোগ করবেন। গত বৃহস্পতিবার (৬) আগস্ট রাতে নগরের সিলেটে ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট চয়ন নাইডুর মোটরসাইকেলে বাঁধা বোমা-সদৃশ বস্তু ঘিরে আতঙ্কের ২১ ঘণ্টা পর জানা যায় বস্তুটি বোমা নয়। বস্তুটি হলো গ্রাইন্ডিং মেশিন। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১৭ পদাতিক ডিভিশনের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল এটি নিশ্চিত করে।
গত বুধবার সন্ধ্যার দিকে ট্রাফিক সার্জেন্ট চয়ন নাইডু তার মোটরসাইকেল চৌহাট্টা পয়েন্টে রেখে চশমা দোকানে যান ১০ মিনিট পর তিনি ফিরে গিয়ে মোটরসাইকেলে বোমাসদৃশ একটি বস্তু দেখতে পান। বিষয়টি তিনি উর্ধতন কর্মকর্তাদের অবহিত করলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দ্রুত এসে ঘটনাস্থল ঘিরে রাখে। সেই সাথে নগরজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে আতংক। একই সাথে বন্ধ রাখা হয় চৌহাট্ট-জিন্দাবাজার সড়কও। এ বিষয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার জ্যোতির্ময় সরকার শনিবার বলেন, তদন্ত চলছে। আশা করছি দ্রুতই তদন্ত শেষ হবে। তদন্ত শেষ হলে বিস্তারিত জানানো হবে। এছাড়া সার্জেন্ট চয়ন নাইডু সাময়িক বহিস্কারের বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না বলে জানান।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন