English

30 C
Dhaka
শনিবার, এপ্রিল ২০, ২০২৪
- Advertisement -

খাবারের স্বাদ বদলে তৈরি করুন মাংসের আচার

- Advertisements -

মধ্যবিত্ত বাড়ির রান্নাঘরে উঁকি দিলেই হরেক রকম আচারের বয়াম দেখতে পাবেন। লেবুর আচার, আমের আচার কিংবা মরিচের আচার এই সব কিছুই দেখা যায়। কিন্তু এত আচারের মধ্যে কখনও কি চিকেনের আচার আপনি দেখেছেন? এই অন্যরকম চিকেনের আচারে কী কী থাকে তা জানেন? কীভাবেই বা বানানো হয় এই আচার? চলুন সেটাই দেখে নেওয়া যাক।

এই আচার তৈরির জন্য আপনার কী কী প্রয়োজন জেনে নিন-

মুরগির মাংস–৫০০ গ্রাম (কুচি করে কাটা), পেঁয়াজ– ৩টি (মিহি করে কাটা), রসুন– ১০০ গ্রাম (কিমা করা), আদা– ১০০ গ্রাম (গ্রেট করা), মরিচ গুঁড়ো– ১ কাপ, সরিষার তেল– ২৫০ মিলি.লি, লবণ– স্বাদমত, ধনিয়া গুড়ো– ১/২ চামচ, ভিনিগার– ২ চা–চামচ।

এবার দেখে নিন কীভাবে তৈরি করবেন চিকেনের আচার-

কড়াইতে প্রথমে সরিষার তেল ভালো করে গরম করে নিতে হবে। যতক্ষণ না মুচমুচে হচ্ছে ততক্ষণ চিকেনগুলো ভালো করে ভাজতে হবে।

ভাজা চিকেনগুলো একটি পাত্রে তুলে রাখুন। এবার কড়াইয়ের তেলে পেঁয়াজ, আদা বাটা এবং ধনিয়া গুড়ো দিয়ে ভালো করে ভাজতে হবে। তার পাঁচ মিনিট পর লবণ আর রসুন দিয়ে দিন।

মশলা ভালো করে ভাজা হয়ে গেলে ভাজা চিকেনগুলো তাতে দিয়ে দিতে হবে এবং ভালো করে মশলার সঙ্গে মিশিয়ে দিতে হবে। ওপর থেকে মরিচ গুড়ো ছড়িয়ে দিন। তার কিছুক্ষণ পর চুলা নিভিয়ে দিন।

একদম শেষে মনে করে আচারের ওপর থেকে একটু ছড়িয়ে দিতে হবে। তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে চিকেনের আচার। এবার আপনি যদি এই চিকেনের আচার অনেকদিন রেখে খেতে চান, ঘরের সাধরণ তাপমাত্রাতেই রাখতে পারেন।

আচারটি বানানোর পর প্রথমে ঠান্ডা করে তারপর একটি পরিষ্কার বয়ামে রেখে দিতে হবে। তাহলে প্রায় একমাসও এই চিকেনের আচার খেতে পারবেন। আর যদি রেফ্রিজারেটরে রাখেন তাহলে দুই থেকে তিন মাস ভালো থাকবে।

সাবস্ক্রাইব
Notify of
guest
0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
View all comments
Advertisements
সর্বশেষ
- Advertisements -
এ বিভাগে আরো দেখুন